৪৪ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম বরফ অ্যান্টার্কটিকায়

0
80

সাধারণত এসময় অ্যান্টার্কটিকা সাগরে সবচেয়ে বড় এলাকা বরফে ঢাকা থাকে। কিন্তু দক্ষিণ গোলার্ধের সেই এলাকায় এবার বরফ অনেক কম। বিজ্ঞানীরা বলছেন, ৪৪ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম বরফ ছিল সেখানে, যা খুবই উদ্বেগজনক। খবর ডয়েচে ভেলের

অ্যান্টার্কটিকার বরফের পরিমান প্রথম নিরূপন করা হয়েছিল ১৮৭৯ সালে। সেই থেকে প্রতিবছর ১০ সেপ্টেম্বরে সবচেয়ে বড় এলাকা জুড়ে বরফ দেখা গেছে সেখানে। সেপ্টেম্বরের একাদশ দিন থেকে বসন্তের শুভাগমন, ফলে তাপমাত্রা বাড়তে থাকে এবং এর প্রভাবে গলতে থাকে বরফ। তাই অ্যান্টার্কটিকা সাগরে বছরের সবচেয়ে বড় বরফাচ্ছাদিত এলাকার তথ্য নিতে এই ১০ সেপ্টেম্বরের দিকেই নজর রাখেন বিজ্ঞানীরা।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল স্নো অ্যান্ড আইস ড্যাটা সেন্টার (এনএসআইডিসি) জানিয়েছে, শীত মৌসুমে অ্যান্টার্কটিকায় এবার বরফ ছিল গত ৪৪ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম এলাকা জুড়ে৷

এনএসআইডিসি-র তথ্য অনুযায়ী, গত ১০ সেপ্টেম্বর সেখানে বরফ ছিল ১৬.৯৬ মিলিয়ন বর্গ কিলোমিটার (৬৫ লাখ ৫০ হাজার বর্গ মাইল) এলাকা জুড়ে৷

শুনে বিশাল মনে হলেও এই সময়ে এত কম বরফ নাকি ১৯৭৯ সালের পর থেকে কখনোই দেখা যায়নি৷ এক বিবৃতিতে এনএসআইডিসি তাই জানায়, ‘‘১৯৭৯ সাল থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে সাগরে সর্বোচ্চ বরফের বাৎসরিক এ হিসাবটি আসলে বিশাল ব্যাবধানে সবচেয়ে কম৷”

এনএসআইডিসির বিজ্ঞানী ওয়াল্ট মায়ার বলেন, ‘‘এটা শুধু রেকর্ডভাঙা বছর নয়, এটা আসলে চূড়ান্ত রেকর্ডভাঙা বছর৷”

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এ কারণে অ্যান্টার্কটিকার প্রাণিদের, বিশেষ করে পেঙ্গুইনদের খুব সমস্যায় পড়তে হবে ৷ পেঙ্গুইন বরফে প্রজনন করে, বরফেই শিশুদের প্রকৃতির সঙ্গে লড়ে বেঁচে থাকার প্রাথমিক পাঠ দেয়৷ বরফ-রাজ্য ছোট হওয়া তাদের জীবনে সংকট বাড়াতে পারে৷

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.