রাজধানীতে তীব্র যানজট, ভোগান্তিতে নগরবাসী

0
50
রাজধানীতে আজ তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। ১১ জানুয়ারি, শাহবাগ, ঢাকা

ভিক্টর পরিবহের বাসের যাত্রী আবদুল ওয়াহাব বলেন, সকাল ১০টার মধ্যে তাঁর মতিঝিল পৌঁছানোর কথা। কিন্তু যানজটের যা পরিস্থিতি, তাতে পৌঁছতে পারবেন কি না, তা নিয়ে সন্দেহ আছে। যানজটে বিরক্তি প্রকাশ করে তিনি বলেন, সভা-সমাবেশ করে রাজনৈতিক দল, আর ভোগান্তিতে পরে সাধারণ মানুষ।

সড়কে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা জানিয়েছেন, রাজধানীর নয়াপল্টনসহ কয়েকটি স্থানে বিএনপিসহ সরকারবিরোধীরা আজ গণ-অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে। অন্যদিকে, ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীরা পাল্টা কর্মসূচি পালন করছেন। এ কারণে আজ রাজধানীর সড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

ট্রাফিক পুলিশের কন্ট্রোল রুম থেকে জানানো হয়েছে, সড়কে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় যানবাহনের চাপ বেশি রয়েছে। তবে কোনো সড়ক একেবারে বন্ধ হয়ে আছে কি না, তা তারা নিশ্চিত করতে পারেনি।
সকালে পল্টন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বিএনপির গণ-অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নিতে সকাল ৯টার পর থেকেই বিভিন্ন এলাকা থেকে নেতা-কর্মীরা আসছেন। অনেকেই আসেন খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে। ফলে সড়কে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর প্রভাব বাড়তে থাকে।

বেলা ১টায় গুগল ম্যাপের তথ্য বলছে, রাজধানীর কাকরাইল, পুরানা পল্টন, প্রেসক্লাব, ফকিরাপুল, সেগুন বাগিচা—এসব এলাকায় তীব্র যানজট রয়েছে। যানজট দেখা গেছে, ফার্মগেট থেকে শাহবাগ হয়ে মৎস্য ভবন পর্যন্ত সড়কেও।

দুপুর ১২টার দিকে শাহবাগ মোড়ে কথা হয় কবির হোসেন নামে এক যাত্রীর সঙ্গে। ওয়েলকাম পরিবহনের একটি বাসে তিনি সাভার থেকে গুলিস্তান যাচ্ছিলেন। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ফার্মগেটের আগ পর্যন্ত যানজট পরিস্থিতি তাঁর কাছে স্বাভাবিক মনে হয়েছে। কিন্তু ফার্মগেট থেকে তীব্র যানজট পেয়েছেন। ফার্মগেট থেকে শাহবাগ পর্যন্ত আসতে প্রায় ৪৫ মিনিট সময় লেগেছে।

এ সময় শাহবাগ এলাকা দিয়ে অনেক মানুষকে হেঁটে গন্তব্যে যেতে দেখা গেছে। শিকর পরিবহনের চালকের সহকারী সোহেল মিয়া বলেন, যানজট ঢাকা শহরে নিয়মিত ঘটনা। কিন্তু আজকের অবস্থা অন্যদিনের চেয়ে খারাপ।

যানজটের কারণে আজ সময়মতো অফিসে পৌঁছাতে পারেননি মিরপুর থেকে মতিঝিলে আসা সাব্বির আহমেদ। রাজউক ভবনের সামনে তিনি বলেন, রাজনৈতিক দলের কর্মসূচি খোলা মাঠে হওয়া উচিত। তা না হলে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি কমবে না।

বেলা দেড়টার দিকে ঢাকা মহানগর ট্রাফিক পুলিশের রমনা বিভাগের পরিদর্শক (প্রশাসন) শেখ ওজিয়ার রহমান  বলেন, কিছু রাস্তায় যানবাহনের চাপ বেশি রয়েছে। তবে তাঁরা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে চেষ্টা করছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.