রহস্য, অবিশ্বাস ও রোমাঞ্চের গল্প

0
117
ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে অভিনয়শিল্পী সাবিলা নূর

গত পবিত্র ঈদুল ফিতরে চরকিতে মুক্তি পাওয়া সিরিজ ‘মাইশেলফ অ্যালেন স্বপন’ নিয়ে এখনো আলোচনা হয়। দুই মাস পেরিয়ে গেলেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই সিরিজ নিয়ে লেখালেখি করেন অনেকে। এবার ঈদুল আজহায় আরেকটি ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ নিয়ে আসছে প্ল্যাটফর্মটি। রহস্য, অবিশ্বাস ও রোমাঞ্চের গল্পে তৈরি তারকাবহুল এই সিরিজের ট্রেলার, গান মুক্তির পর আলোচিত হয়েছে।

‘একজনের সঙ্গে জাস্টিস করতে গিয়ে আমি তোমার সাথে ইনজাস্টিস করে ফেলেছি’—এমন একটি সংলাপ দিয়ে শুরু হয়েছে সিরিজটির ট্রেলার। দুই মিনিটের ট্রেলার দেখে বোঝা যায়, একজনের হাতে খুন হয়েছে জয়িতার প্রেমিক। হত্যার রহস্য উন্মোচন করতে গিয়ে গোলকধাঁধায় আটকে যায় জয়িতা। সামনে আসতে থাকে অবিশ্বাস্য সব সত্য। এই সত্য তাকে মানসিকভাবে ভেঙে দেয়। তবু সত্যের মুখোমুখি তাকে হতে হবে। সত্য ঘটনার ছায়া অবলম্বনে আট পর্বের সিরিজটি নির্মাণ করেছেন আবু শাহেদ ইমন। গত বৃহস্পতিবার রাতে মুক্তি পেয়েছে সিরিজের গান ‘তোমার কথার মালায়’। পরিচালক আবু শাহেদ ইমনের কথায় গানটি গেয়েছেন ইমন চৌধুরী ও মাশা ইসলাম। রোমান্টিক ধাঁচের গানটি বেশ পছন্দ করেছেন দর্শকেরা।

‘মারকিউলিস’-এ জয়িতা চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাবিলা নূর। গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে নাটক থেকে দূরে ছিলেন সাবিলা। এ জন্য ভক্ত ও সহকর্মীদের অনেকেই জানতে চেয়েছেন, ‘কোন অভিমানে কাজ করছেন না?’ সেই উত্তর এবার হাসিমুখে দিলেন সাবিলা। জানালেন, গত বছরের অক্টোবর থেকে শুটিংয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। একের পর এক মহড়াতে অংশ নিতে হয়েছে। ১১ বার বদল হয়েছে চিত্রনাট্য! শেষ পর্যন্ত চরিত্রটি তাঁকে ভয়ানক এক ‘জার্নি’র মুখোমুখি করেছে। সাবিলার ভাষ্যে, ‘চরিত্রটি অনেক কঠিন ছিল। এ ধরনের চরিত্রে আমি আগে কখনোই অভিনয় করিনি।’

ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে অভিনয়শিল্পী দীপক সুমন ও ইরেশ যাকের
ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে অভিনয়শিল্পী দীপক সুমন ও ইরেশ যাকের

সিরিজটি দিয়ে প্রথমবার স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে নাম লেখাচ্ছেন সাবিলা। তাই প্রথম থেকেই কিছুটা চিন্তিত ছিলেন। কারণ, নতুন এক মাধ্যমে যুক্ত হবে তাঁর নাম। কাজের অভিজ্ঞতা নিয়ে সাবিলা বলেন, ‘আমাদের টিমটি ছিল অনেক বড়। সেখানে ধরে ধরে কাজ করতে হয়েছে। এমনও হয়েছে, শীতের মধ্যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থেকেছি। তবু কোনো ছাড় দিয়ে কাজ করিনি। এই কাজের অভিজ্ঞতা আমার সঙ্গে সারা জীবন থাকবে। সহশিল্পী, পরিচালকসহ সবাই কাজটি নিয়ে সিরিয়াস ছিলেন।’

সাবিলা ছাড়াও তারকাবহুল সিরিজটিতে আছেন গিয়াসউদ্দিন সেলিম, জাকিয়া বারী মম, ফজলুর রহমান বাবু, রওনক হাসান, ইরেশ যাকের, রাশেদ অপু, শরীফ সিরাজ, সাবেরী আলম, আইশা খান, নাজিবা বাশার, পৌষালী অথৈ, মিলি বাশার, নাফিস আহমেদ, আফিয়া তাবাসসুম, মাজনুন মিজান, অশোক ব্যাপারী প্রমুখ।

ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে গিয়াসউদ্দিন সেলিম, আইশা খান ও সাবেরী আলম
ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে গিয়াসউদ্দিন সেলিম, আইশা খান ও সাবেরী আলম

‘জালালের গল্প’, ‘আড়াই মণ স্বপ্ন’সহ আগের প্রায় সব কাজেই আবু শাহেদ ইমন সামাজিক গল্প বললেও এবারই প্রথম রহস্য, রোমাঞ্চধর্মী গল্প বেছেছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি সব সময়ই সামাজিক বার্তা থেকে এমন গল্প বলেছি, যেটা দর্শকদের অনুপ্রাণিত করে। এবারের গল্পটি একই সঙ্গে সামাজিক বার্তা দেবে, আবার রোমহর্ষক ঘটনাগুলোকে গল্পের সঙ্গে যুক্ত করবে। বলা যায়, একের মধ্যে দুই। এ সময়ের দর্শক যে ধরনের ওটিটির কাজ পছন্দ করেন, সেটাই পাবেন।’ পরিচালকেরও এটি প্রথম ওয়েব সিরিজ।

‘মনপুরা’, ‘স্বপ্নজাল’ ও ‘গুণিন’ পরিচালক গিয়াসউদ্দিন সেলিম সিরিজটিতে বিশেষ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি হেসে বলেন, ‘আগে দু-একটা ফ্রেমে বা দৃশ্যে হয়তো অভিনয় করেছি, কিন্তু এবার মোটামুটি বড় একটি চরিত্র দিয়ে আমাকে বিপদে ফেলেছিল ইমন (হাসি)। তবে কাজের অভিজ্ঞতা বেশ চমৎকার। অন্য সিরিজের তুলনায় এই গল্পের ধরন মৌলিক। বেশ বড় আয়োজনের একটা কাজ হয়েছে।’

ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে মাজনুন মিজান ও জাকিয়া বারী মম
ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে মাজনুন মিজান ও জাকিয়া বারী মম

এর আগে ‘মহানগর’ সিরিজে অভিনয় করে প্রশংসা কুড়ান জাকিয়া বারী মম। এবারই প্রথম তাঁকে চরকির সিরিজে দেখা যাবে। একই সঙ্গে রওনক হাসানও প্রথমবার কাজ করেছেন চরকির সঙ্গে। সিরিজে কাজের অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে মম বলেন, ‘মারকিউলিস একটা সিস্টেমের কথা বলে, একটা রাষ্ট্রযন্ত্রের কথা বলে। সিরিজের সব চরিত্রের নানা ডাইমেনশন আছে।’ রওনক বলেন, ‘আমরা একটা ভালো কাজ করার চেষ্টা করেছি। বাকিটা দর্শক বলবেন।’

ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে জাকিয়া বারী মম
ওয়েব সিরিজ ‘মারকিউলিস’ এর দৃশ্যে জাকিয়া বারী মম

চরকি অরিজিনাল সিরিজ ‘মারকিউলিস’ প্রসঙ্গে পরিচালক বলেন, ‘এটি একটি মেয়ের গল্প। তার প্রেমিক একজনের হাতে খুন হয়। ড্রামা থ্রিলার জনরার গল্প হলেও সামাজিক অনেক ঘটনা রয়েছে। এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে, খুব সাধারণ দর্শকেরাও এটা উপভোগ করতে পারবেন।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.