নাশতায় নতুন কিছু

0
193

বিকেলের নাশতায় পরিবারের ছোটরা নতুন কিছু চায়। টিফিনেও পেতে চায় ভিন্ন স্বাদ। শিশুদের খাবারের স্বাদে বৈচিত্র্য আনতে ঘরেই বানান পনির, পটোল ও বেগুনের নাশতা। রেসিপি দিয়েছেন সীমা শওকত

পটোলের পাকোড়া উপকরণ : বড় পটোল ৮টি, মাঝারি চিংড়ি আধা কাপ, আলু সেদ্ধ ৩টি, আদা-রসুন বাটা আধা চামচ করে, মরিচের গুঁড়া আধা চামচ, হলুদ আধা চামচ, বেসন এক কাপ, কালিজিরা এক চামচ, লবণ পরিমাণমতো ও তেল পরিমাণমতো। প্রস্তুত প্রণালি: পটোল ধুয়ে দুই ফালি করে নিন। ছোট চামচ দিয়ে বিচি বের করে নিন। চিংড়ির খোসা ছাড়িয়ে আদা, রসুন, হলুদ ও লবণ দিয়ে মেখে নিন। এবার পাত্রে অল্প তেল দিয়ে চিংড়ি ছেড়ে দিন। নাড়াচাড়া করে আলু ভেঙে দিন। পটোলের বিচিগুলো দিন। এবার নামিয়ে ঠান্ডা করে পটোলের ফালিতে রান্না করা পুর পুরে নিতে হবে। ঘন করে বেসনের ব্যাটার করে সেখানে পটোলের পুরগুলো চুবিয়ে তেলে বাদামি করে ভাজতে হবে।

পনিরের সাসলিক উপকরণ : পনির আড়াইশ গ্রাম, ক্যাপসিকাম দুই রঙের ২টি, টমেটো সস ২ চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া ১ চামচ, চিলি সস ২ চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, গরম মসলা আধা চামচ, লবণ ১ চামচ, সাসলিক কাঠি ৬/৮টি, ভাজার জন্য তেল পরিমাণমতো। প্রস্তুত প্রণালি: পনির ও ক্যাপসিকামগুলোকেও কিউব করে কাটতে হবে। এক এক করে সব মসলা দিন। লেবু, লবণ ও বাকি মসলা দিয়ে আলতো হাতে মেখে নিতে হবে। ২০ মিনিট ডিপফ্রিজে রেখে দিন। সাসলিক কাঠিগুলো পানিতে ২০ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে। এরপর ফ্রিজ থেকে পনিরগুলো বের করে কাঠিতে গেঁথে ফ্রাই প্যানে শ্যালো ফ্রাই করে নামিয়ে নিন।

পনির পাঁপড় উপকরণ: পনির (লম্বা করে কাটা) আট পিস, লেবুর রস এক টেবিল চামচ, শুকনো মরিচের গুঁড়া এক চা চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া এক চামচ, লবণ পরিমাণমতো, কাঁচা পাপড় (ভেঙে গুঁড়া করা) ৬/৭টি, ময়দা ৪ টেবিল চামচ, কর্নফ্লাওয়ার এক টেবিল চামচ ও তেল পরিমাণমতো। প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে পনিরগুলো লম্বা করে কেটে নিন। পনিরের ওপর লেবুর রস, লবণ ও মরিচের গুঁড়া মেখে কিছুক্ষণ রাখতে হবে। ময়দা ও কর্নফ্লাওয়ার দিয়ে পাতলা ব্যাটার বানাতে হবে। এতে পনির চুবিয়ে ভেঙে রাখা পাঁপড়ে গড়িয়ে ডুবো তেলে ভেজে নিন। ভাজা হলে গরম গরম পরিবেশন করুন।

ব্রিনজেল কিমা মোসাকা
উপকরণ : বিফ কিমা আধা কেজি, পেঁয়াজ কিমা আধা কাপ, রসুন কুচি ১ টেবিল চামচ, জিরা বাটা ১ চা চামচ, আদা কুচি ১ চামচ, গরম মসলার গুঁড়া ১ চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া ১ চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চামচ, ওয়েস্টার সস ১ টেবিল চামচ, টমেটো সস আধা কাপ, বেগুন দুটি, আলু আধা কেজি, ময়দা ও কর্নফ্লাওয়ার আধা কাপ, সরিষা বাটা ১ চামচ ও মোজরোলা চিজ ১ কাপ।
 

প্রস্তুত প্রণালি: কিমা লবণ দিয়ে সেদ্ধ করুন। রসুন কুচি ও পেঁয়াজ ভাজুন। বাদামি হলে বাকি সব মসলা ও কিমা দিন। টমেটো সস, ওয়েস্টার সস ও লবণ দিয়ে নেড়ে নামান। ময়দা ও কর্নফ্লাওয়ার, গোলমরিচের গুঁড়া, সরিষা বাটা, লবণ ও পানি দিয়ে গোলা তৈরি করুন। বেগুন পাতলা করে কাটুন। ওই মিশ্রণে বেগুন ডুবিয়ে বাদামি করে ভাজুন। আলু সেদ্ধ করে চটকিয়ে তাতে ভাজা পেঁয়াজ, শুকনো মরিচ ভাজা, গোলমরিচের গুঁড়া, লবণ ও ২ চামচ ঘি দিয়ে মেখে নিন। যে পাত্রে মোসাকা দেবেন, সেখানে বাটার ব্রাশ করুন। নিচে আলু লেয়ার করে তার ওপর বেগুন ভাজা দিন। তার ওপর কিমা, বেগুন, আবার কিমা দিন। ওপরে মোজরোলা চিজ সাজিয়ে দিন। ওভেন ৫ মিনিট প্রিহিট করুন। ২৫০ ডিগ্রি তাপে ১০-১৫ মিনিট বেক করুন। তেলে বাদামি করে ভাজতে হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.