নমুনার রিপোর্ট আসার আগে শিক্ষকের মৃত্যু

0
81
প্রতীকি ছবি

টাঙ্গাইলের সখীপুরে করোনাভাইরাস সন্দেহে নমুনা দেওয়ার দুই দিন পর এক স্কুলশিক্ষকের (৩০) মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুরে উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নে তিনি নিজ বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় মারা যান।

নতুন নিয়োগ পাওয়া ওই শিক্ষক বেতন–ভাতা তুলতে আট দিন আগে সিলেটে যান। সিলেট থেকে বাড়ি ফেরার কারণে এলাকাবাসী তাঁকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখেন।

কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মজিবর রহমান ফকির জানান, সিলেটে এমপিওভুক্ত একটি উচ্চবিদ্যালয়ে নতুন নিয়োগ পাওয়া ওই শিক্ষক দীর্ঘদিন ধরে হৃদ্‌রোগে ভুগছিলেন। আট দিন আগে তাঁর কর্মস্থল সিলেট থেকে ফেরার কারণে এলাকাবাসী তাঁকে বাড়িতেই কোয়ারেন্টিনে রাখেন। ওই শিক্ষক নিজে থেকেই গত শনিবার সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে নমুনা দিয়ে যান। আজ সোমবার বাড়িতেই তাঁর মৃত্যু হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবদুস সোবহান বলেন, গতকাল রোববার তাঁর নমুনাসহ ১৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়েছে। এখনো রিপোর্ট আসেনি।

এই চিকিৎসা কর্মকর্তা আরও জানান, সখীপুরে এ পর্যন্ত ২৪০ জনের নমুনা আইইডিসিআরে পাঠানো হয়েছে। ২২২ জনের রিপোর্ট এসেছে। এঁদের মধ্যে একই পরিবারের পাঁচজনসহ ছয়জনের করোনা ‘পজিটিভ’ আসে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে