‘এ যেন কেঁচো খুঁড়তে সত্যি সত্যি সাপ’

0
545

ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় নগরজুড়ে চলছে সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা অভিযান। প্রতিদিনই কোনো না কোনো এলাকায় সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর উপস্থিতিতে পরিষ্কার–পরিচ্ছন্নতা অভিযান হচ্ছে। পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালাতে গিয়ে এবার মিলল বিষধর সাপের সন্ধান।

গতকাল সোমবার সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন পরিচ্ছন্নতা অভিযান থেকে সাপুড়ে দিয়ে ছয়টি বিষধর সাপ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা সাপের মধ্যে দুটি বিষধর গোখরাও রয়েছে।

নগরীর ব্যস্ত এলাকা জিন্দাবাজারের কাস্টমস কার্যালয় ও মাতৃমঙ্গল হাসপাতালসংলগ্ন এলাকা থেকে সাপুড়ে জীবিত অবস্থায় ছয়টি সাপ উদ্ধার করে। মেয়রের উপস্থিতিতে সাপুড়ে মো. বোরহান উদ্দিন জালালীসহ সাত সদস্যের একদল সাপুড়ে সাপগুলো ধরতে সক্ষম হয়।

সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ দপ্তর জানায়, বন, ঝোপঝাড় ও অপরিচ্ছন্ন এলাকায় প্রায় পক্ষকাল ধরে চলছে সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা অভিযান। জিন্দাবাজার এলাকার কাস্টম অফিস ও মাতৃমঙ্গল হাসপাতাল এলাকায়ও চলছিল অভিযান। একই সঙ্গে সড়ক সম্প্রসারণের একটি প্রকল্পের কাজ চলার সময় নির্মাণশ্রমিকেরা সাপের উপদ্রব আঁচ করতে পেরে মেয়রকে জানান। গতকাল সকালে মেয়র সাপুড়ে দলকে নিয়ে সেখানে গিয়ে সাপ উদ্ধার করেন।

মেয়র  জানান, ওই স্থানে পরিচ্ছন্নতা অভিযান ও উন্নয়নকাজ একই সঙ্গে চলছিল। এ জন্য সাপের উপস্থিতির বিষয়টি অনুমান করেছিলেন শ্রমিকেরা। তাঁদের কথায় গুরুত্ব দিতে গিয়ে সাপুড়ে দিয়ে অভিযান চালাতে গিয়ে ধরা পড়ল ছয়টি সাপ। ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় মেয়রের নেতৃত্বে অধিকাংশ পরিচ্ছন্নতা অভিযান হচ্ছে। পাশাপাশি সড়ক বড় করার উন্নয়ন প্রকল্পেও মেয়রের নেতৃত্বে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান হয়। গতকাল সাপ উদ্ধারের ঘটনাটিকে মেয়র রসিকতার সুরে ‘সাপ উদ্ধার অভিযান’ অভিহিত করে বলেন, ‘এ যেন কেঁচো খুঁড়তে সত্যি সত্যি সাপ বের হয়ে এল।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.