হিটলার-নেতানিয়াহুর মধ্যে কোনো ফারাক নেই: এরদোয়ান

0
120
ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভ। ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ছবির পাশে অ্যাডলফ হিটলারের ছবি সাঁটিয়ে প্ল্যাকার্ড হাতে একজন। ইতালির রোমে, ২৮ অক্টোবর ২০২৩, রয়টার্স

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ও নাৎসি একনায়ক অ্যাডলফ হিটলারের মধ্যে ‘কোনো ফারাক নেই’ বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। রাজধানী আঙ্কারায় গতকাল বুধবার এক অনুষ্ঠানে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এ মন্তব্য করেন।

গাজায় চলমান সংঘাতের জেরে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর ব্যাপক সমালোচনা করে আসছেন এরদোয়ান।

হিটলারের সঙ্গে নেতানিয়াহুর তুলনা টানার পাশাপাশি তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, তিনি (নেতানিয়াহু) হিটলারের চেয়েও ধনাঢ্য ব্যক্তি। পশ্চিম ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে সব ধরনের সমর্থন আসে।

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামলা চালায়। এর জবাবে ওই দিন থেকেই ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড গাজায় নির্বিচার হামলা চালিয়ে আসছে ইসরায়েলি বাহিনী। এতে নিহত মানুষের সংখ্যা ও ধ্বংসের ব্যাপকতা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

এর প্রতিক্রিয়ায় এরদোয়ান ইসরায়েলকে ‘সন্ত্রাসী রাষ্ট্র’ ও নেতানিয়াহুকে ‘গাজার কসাই’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। হামাসকে অভিহিত করেছেন ‘মুক্তিকামী সংগঠন’ হিসেবে।

তুর্কি প্রেসিডেন্টের এসব মন্তব্যের সমালোচনা করেছেন নেতানিয়াহু। ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী এক বিবৃতিতে বলেন, ‘যিনি কুর্দিদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালিয়েছেন এবং যিনি তাঁর বিরোধিতা করা সাংবাদিকদের বন্দী করার বিশ্ব রেকর্ড করেছেন, সেই এরদোয়ানই শেষ ব্যক্তি হিসেবে আমাদের কাছে নৈতিকতা প্রচার করছেন।’

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সবশেষ হিসাবে ইসরায়েলের বিমান হামলা ও স্থল অভিযানে অন্তত ২১ হাজার ১১০ জন নিহত হয়েছেন, যাঁদের অধিকাংশই নারী ও শিশু। আর আহত হয়েছেন ৫৫ হাজারের বেশি মানুষ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.