রান চাপায় পড়েও টিকে থাকলেন শান্ত-জাকির

0
107
শান্ত-জাকির

সহজেই বাংলাদেশকে ফলোঅন করাতে পারতো ভারত। বাংলাদেশকে ১৫০ রানে অলআউট করেছে তারাা। প্রথম ইনিংস থেকে ২৫৪ রানের বিশাল লিড পেয়েছে কেএল রাহুলের দল। চতুর্থ ইনিংসে ওই রান করাও কঠিন। তবে ভারতীয়রা ফলোঅন না করিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামেন। ওপেনার শুভমন গিল ও চেতেশ্বর পূজারার সেঞ্চুরিতে ২ উইকেটে ২৫৮ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে।

সব মিলিয়ে জয়ের জন্য বাংলাদেশ দলের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৫১৩ রানের। পাহাড়সম ওই রান তাড়া করতে নেমে দুই ওপেনার নাজমুল শান্ত ও জাকির হোসেন শেষ বেলার বাধা ছাড়া ১২ ওভার পাড়ি দিয়েছেন। তৃতীয় দিন শেষে তারা তুলেছেন ৪২ রান। বাংলাদেশ এখনও ৪৭১ রানে পিছিয়ে। শান্ত ২৫ ও জাকির ১৭ রান নিয়ে দিন শুরু করবেন।

চট্টগ্রাম টেস্টে টস জেতে ভারত। শুরুতে ব্যাট করার কথা দু’বার ভাবতে হয়নি তাদের। তবে শুরু ভালো হয়নি। দলীয় ৪৮ রানে ৩ উইকেট হারায় তারা। একশ’র পরেই হারায় চতুর্থ উইকেট। সেখান থেকে ক্যাচ মিস, উইকেটে বল লেগেও বেল না পড়ার সুযোগে ৪০৪ রান তোলে ভারত। তিনে নামা পূজারা ৯০ রানের ইনিংস খেলেন। শ্রেয়াস আয়ার করেন ৮৬ রান। ঋষভ পান্তের ব্যাট থেকে আসে ৪৬ রান।

জবাব দিতে নেমে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ১৫০ রানে অলআউট হয়। শান্ত ইনিংসের প্রথম বলেই ফিরে যান। অন্য ওপেনার জাকির করেন ২০ রান। লিটন দাস ২৪ ও মুশফিকুর রহিম ২৮ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। এছাড়া নুরুল হাসান ১৬ রান যোগ করেন। তৃতীয় দিন ফিরে যান মেহেদি মিরাজ ও এবাদত হোসেন। তারা যথাক্রমে ২৫ ও ১৭ রান তোলেন।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক রাহুল ২৩ রানে আউট হন। এরপর শুভমন গিল ও পূজারা ১১৩ রানের জুটি দেন। ওপেনার গিল ফিরে যাওয়ার আগে ১১০ রানের ইনিংস খেলেন। পূজারা ১০২ রান করে অপরাজিত থাকেন। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের হয়ে চারটি করে উইকেট নেন মেহেদি মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস ধসিয়ে দিয়েছেন বাঁ-হাতি লেগ স্পিনার কুলদীপ যাদব। তিনি পাঁচ উইকেট নেন। পেসার মোহাম্মদ সিরাজ নেন তিন উইকেট।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.