বিপিএলে রংপুর রাইডার্স দলে সাকিব–বাবর

0
114
টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অন্যতম সেরা বোলার হাসারাঙ্গা খেলবেন রংপুরের হয়ে।ছবি: টুইটার

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দশম আসর শুরু হতে এখনো অনেক দেরি। সব ঠিক থাকলে আগামী বছর জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময়ে শুরু হতে পারে বাংলাদেশের একমাত্র ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট।

তবে বিপিএলকে সামনে রেখে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো এর মধ্যেই দল গোছাতে শুরু করেছে। ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো যে ক্রিকেটারদের ধরে রাখতে চায়, গতকাল ছিল সেই তালিকা জমা দেওয়ার শেষ দিন। দল গোছানোর চূড়ান্ত কাজটা হবে ২৪ সেপ্টেম্বর। এদিন বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট।

ড্রাফটের বাইরেও ক্রিকেটারদের সঙ্গে চুক্তি করার সুযোগ আছে। সেই সুযোগ কাজেও লাগাচ্ছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। এই যেমন গতবার ফরচুন বরিশালের হয়ে খেলা সাকিব আল হাসানের সঙ্গে এবার চুক্তি সেরে ফেলেছে রংপুর রাইডার্স।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অন্যতম সেরা বোলার হাসারাঙ্গা খেলবেন রংপুরের হয়ে।
টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অন্যতম সেরা বোলার হাসারাঙ্গা খেলবেন রংপুরের হয়ে।ছবি: টুইটার

বিদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে বাবর আজম, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, ব্রেন্ডন কিং, ইহসানুল্লাহকেও নিশ্চিত করে ফেলেছে রংপুর। গতবার রংপুরের হয়ে খেলা ক্রিকেটারদের মধ্যে হাসান মাহমুদ, শেখ মেহেদী হাসান, নুরুল হাসান ও আজমতউল্লাহ ওমরজাইকে এবারও ধরে রেখেছে দলটি।

বিপিএলের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসেই খেলবেন লিটন দাস, মোস্তাফিজুর রহমান ও ইমরুল কায়েস। দলটি ড্রাফটের বাইরে থেকে চুক্তি করেছে গতবার সিলেট স্ট্রাইকার্সের হয়ে খেলা তাওহিদ হৃদয়ের সঙ্গে।

সিলেটে থাকছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও নাজমুল হোসেন। দল বদলাচ্ছেন না মেহেদী হাসান মিরাজও। সাকিবকে না পেলেও এই অলরাউন্ডারকে ধরে রেখেছে ফরচুন বরিশাল। এই দলে আছেন মাহমুদউল্লাহ, এনামুল হক ও আফগানিস্তানের ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান।

সিলেটে থাকছেন মাশরাফি, তামিম, বরিশালে
সিলেটে থাকছেন মাশরাফি, তামিম, বরিশালে

ড্রাফটের বাইরে থেকে এই দল চুক্তি করেছে অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবালের সঙ্গে। বিদেশিদের মধ্যে পাকিস্তানের অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক ও পেসার আব্বাস আফ্রিদি আছেন। পুরো বিপিএলের জন্যই এ দুই ক্রিকেটারের সঙ্গে ফরচুন বরিশালের চুক্তি।

পাকিস্তানের আরেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ হারিসকে পুরো টুর্নামেন্টের জন্য পাচ্ছে বিপিএলের আরেক দল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। আফগানিস্তানের নজিবুল্লাহ জাদরানকেও ড্রাফটের বাইরে থেকে দলে নিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। এ ছাড়া চট্টগ্রাম রেখে দিয়েছে শুভাগত হোম, জিয়াউর রহমান ও নিহাদুজ্জামানকে।

আগামী বিপিএলে কোন দলের কোচ হবেন খালেদ মাহমুদ?
আগামী বিপিএলে কোন দলের কোচ হবেন খালেদ মাহমুদ?

সে তুলনায় অনেকটা পিছিয়ে খুলনা টাইগার্স ও ঢাকা ডমিনেটরস। বিপিএল ড্রাফটের তিন সপ্তাহ বাকি, কিন্তু খুলনা এখন পর্যন্ত যাদের ধরে রাখতে চায়, সেই ক্রিকেটারদের নামই জমা দেয়নি। গতবার দলটির প্রধান কোচ ছিলেন খালেদ মাহমুদ।

এবার তিনি কোচ থাকছেন কি না, সেটাও নিশ্চিত নয়। ওদিকে ঢাকা ডমিনেটরস আছে আরেক বিপদে। গতবার দলটির মালিক ছিল রূপা গ্রুপ। এবার প্রতিষ্ঠানটি বিপিএলেই থাকছে না। জানা গেছে, ঢাকা ফ্র্যাঞ্চাইজিটি এবার খেলবে নতুন মালিকানায়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.