গাছ কেটে পাচারের অভিযোগে ভূমি কর্মকর্তাসহ ৯ জন কারাগারে

0
134
পটুয়াখালীর গলাচিপায় সরকারি সংরক্ষিত বন থেকে অবৈধভাবে গাছ কেটে পাচার

পটুয়াখালীর গলাচিপায় সরকারি সংরক্ষিত বন থেকে অবৈধভাবে গাছ কেটে পাচার, ভূমি দখল ও মাটি কেটে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগে ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তাসহ ৯ জনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

তারা হলেন- মো. শাহিন (৩৫), মো. রিপন প্যাদা (৪০), মো. জামাল প্যাদা (৩৪), মন্নান মাতুব্বর (৪৫), জাকির হোসেন (৫৫), সো. কাওছার (২৫), মো. মাহাবুব প্যাদা (৫৫), দেলোয়ার হোসেন (৫৫), আনোয়ার মৃধা।

উপজেলার চরবিশ্বাস ইউনিয়নের সংরক্ষিত বনে অবৈধভাবে প্রবেশ করে ভূমি দখল, মাটি কেটে রাস্তা নির্মাণ ও গাছ কেটে পাচারের অভিযোগে গত ৭ নভেম্বর ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। মামলাটি করেন চরআগস্তি ফরেস্ট ক্যাম্পের বিট অফিসার মো. আবদুল হই।

এ মামলায় আজ রোববার উপজেলা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজিরা দিলে আদালত ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা জাকিরসহ ৯ জনকে জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ৭ নভেম্বর সকালে বনকর্মীরা টহলকালীন সময়ে দেখতে পান, বুড়াগৌড়াঙ্গ নদীর পূর্ব পারের বাগান থেকে ২০ থেকে ৩০ জন লোক কেওড়া, ছৈলাসহ নানা প্রজাতির গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছেন। এ সময় বনকর্মীরা উপস্থিত হলে তাদের ওপর আক্রমণ করা হয়। পরে বনকর্মীরা গাছের গুঁড়িসহ বিভিন্ন অংশের ৮০ ঘনফুট গাছ (গোড়া) উদ্ধার করেন।

গলাচিপা রেঞ্জ কর্মকর্তা মো.জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, আদালত ৯ জনকে জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন। অন্য মহিলা আসামিকে ৫০০ টাকা মুছলেকা দিয়ে জামিন মঞ্জুর করেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.