১০ কোটি ইউরো খরচায় একসঙ্গে ‘নেইমার–এমবাপ্পে’কে পাচ্ছে চেলসি

0
36
মাইখেলি মুদরিক, ছবি: টুইটার

ইংলিশ পরাশক্তি চেলসি দুঃসময়ের চক্রে আটকে আছে। একটির পর একটি ধাক্কা আসছেই! চলতি মৌসুমেই টমাস টুখেলের পরিবর্তে দায়িত্ব পেয়েছিলেন গ্রাহাম পটার । তিনি চেলসির ভাগ্য তো পরিবর্তন করতে তো পারেনইনি, উল্টো নিজের চাকরিই এখন তাঁর বাঁচানো মুশকিল। নতুন নতুন ফুটবলারকেও দলে ভিড়িয়েছিল চেলসি।

শাখতার দোনেৎস্কে খেলতেন উইঙ্গার মাইখেলিও মুরদিক

শাখতার দোনেৎস্কে খেলতেন উইঙ্গার মাইখেলিও মুরদিক
ছবি: টুইটার

এই তো কয়েক দিন আগেই আতলেতিকো মাদ্রিদ থেকে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড জোয়াও ফেলিক্সকে ধরে এনেছে তারা। ফুলহামের মাঠে তাঁর প্রিমিয়ার লিগে অভিষেকও হয়েছে। সে এমনই অভিষেক যে ফেলিক্স তো বটেই, চেলসিও ভুলে যেতে চাইবে। ফুলহামের মাঠে চেলসি হেরেছে ২-১ গোলে আর লাল কার্ড দেখেছিলেন ফেলিক্স! চেলসির  অন্ধকারে আলোর রেখা হতে পারছে না কেউই। পটার মুদরিকের কাছে সেই আলোর রেখাটাই খুঁজছেন।

দ্য অ্যাথলেটিক বলছে, এরই মধ্যে দুই পক্ষ চুক্তি করতে সম্মত হয়েছে। চুক্তিতে বলা আছে, মুদরিককে কিনতে চেলসির গুনতে হচ্ছে ১০ কোটি ইউরো। যেখানে ৩ কোটি ইউরো নির্ভর করছে বিভিন্ন শর্তের ওপর।

চেলসির সঙ্গে সাত বছরের চুক্তি করতে যাচ্ছেন মুদরিক। শাখতারের সঙ্গে চুক্তির নানা বিষয় নিয়ে সামনাসামনি কথা বলতে চেলসির প্রতিনিধিদল গিয়েছে তুরস্কে। সেখানেই অনুশীলন ক্যাম্প করছিল শাখতার।

দলবদলের বাজারে নির্ভরযোগ্য সূত্র ইতালিয়ান সাংবাদিক ফ্যাব্রিজিও রোমানো জানিয়েছেন, চেলসি কোচ এরই মধ্যে নাকি দলের ভবিষ্যৎ প্রকল্প নিয়ে মুদরিকের সঙ্গে কথাও সেরে ফেলেছেন। মুদরিক মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করতে এসেছেন লন্ডনে। আগামী শনিবার স্টামফোর্ড ব্রিজে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে ম্যাচও দেখার কথা এই ফুটবলারের। সেদিনই চেলসির সঙ্গে চুক্তির আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করার কথা তাঁর।

মুদরিককে দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করেছিল চলতি মৌসুমে লিগে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা আর্সেনালও। কয়েক দিন আগে মুদরিককে দলে ভেড়ানোর প্রতিযোগিতায় তাদের নামটাই আগে শোনা গিয়েছিল। এমনকি গত বছর আর্সেনালে খেলার আগ্রহও প্রকাশ করেছিলেন এই উইঙ্গার। তিনি বলেছিলেন, ‘আর্সেনাল দুর্দান্ত একটি দল, তাদের কোচও দারুণ। সে দলের খেলার ধরনটাও আমার পছন্দ। প্রস্তাব এলে আমার পক্ষে “না বলাটা কঠিন হবে।’

অর্থের অঙ্কেও আর্সেনালের চুক্তি খুব একটা কম হতো না। মুদরিককে দল ভেড়াতে সব মিলিয়ে ৯ কোটি ৫০ লাখ খরচ করতে রাজি ছিল আর্সেনাল। তবে এরপরও এই প্রতিভাবান ফুটবলারকে দলে ভেড়ানোর প্রতিযোগিতায় অনেকটাই ছিটকে গেছে গানাররা।

মাঠের বাইরের খেলায় যেভাবে আর্সেনালকে হারিয়েছে চেলসি, সেভাবে মাঠের খেলায় মুনশিয়ানা দেখাতে পারলেই হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.