শেয়ারবাজার: মুনাফা কমেছে ৭৭ কোম্পানির

0
65
শেয়ার বাজার

জুনে হিসাব বছর শেষ হয়- শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত এমন কোম্পানিগুলোর বেশিরভাগই গত বছরের শেষ ছয় মাসে ভালো ব্যবসা করতে পারেনি। এর ফলে হিসাব বছরের প্রথম ছয় মাসে লোকসান করেছে তাদের অনেকে। আবার অনেক কোম্পানি মুনাফা ধরে রাখলেও কমেছে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায়।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে জুনে হিসাব বছর শেষ হয় ২৬৬টির। এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ২১৯টি জুলাই-ডিসেম্বর সময়ের অনিরীক্ষিত অর্ধবার্ষিক আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ওই দিন পর্যন্ত ৪৭টি কোম্পানি আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেনি।

আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা কোম্পানিগুলোর মধ্যে ৬৯টিই গত বছরের শেষ ছয় মাসে লোকসান করেছে বলে জানিয়েছে। নিট মুনাফায় ছিল ১৫০টি। তবে মুনাফায় থাকা এই কোম্পানিগুলোর মধ্যে ৭৭টির নিট মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে, বেড়েছে ৭৩টির। অর্থাৎ সার্বিক হিসাবে ১৪৬টি বা ৬৭ শতাংশ কোম্পানি মুনাফার দিক থেকে নেতিবাচক ধারায়।

প্রকাশিত ইপিএস বিবেচনায় মুনাফায় থাকা কোম্পানিগুলো গত বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর সময়কালে ৪ হাজার ৬৫২ কোটি টাকা মুনাফা করার তথ্য দিয়েছে। এ হিসাবে আগের বছরের একই সময়ে এই একই কোম্পানিগুলোর নিট মুনাফা ছিল ৫ হাজার ৪৭৬ কোটি টাকা। অর্থাৎ মুনাফায় থাকা কোম্পানিগুলোর নিট মুনাফা আগের বছরের তুলনায় ৮২৪ কোটি টাকা বা ১৫ শতাংশ কমেছে।

অন্যদিকে, যে ৬৯ কোম্পানি লোকসান করেছে বলে জানিয়েছে, হিসাব করে দেখা গেছে, গত জুলাই-ডিসেম্বর সময়ে নিট ৯৬১ কোটি টাকা লোকসান করেছে তারা। লোকসান করা এ কোম্পানিগুলোর মধ্যে ৪০টি আগের বছরের একই সময়ে ৮৯৬ কোটি টাকা মুনাফা করেছিল। বাকি ২৯ কোম্পানি আগের বছরেরও একই সময়ে লোকসানে ছিল এবং তাদের নিট লোকসানের পরিমাণ ছিল ২৩৩ কোটি টাকা।

অন্যদিকে, মুনাফায় থাকা কোম্পানিগুলোর মধ্যে যে ৭৭টি নিট মুনাফা ও শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) আগের হিসাব বছরের একই সময়ের তুলনায় কমেছে, সেগুলো গত জুলাই-ডিসেম্বর সময়ে নিট ১ হাজার ৯৪১ কোটি টাকা মুনাফা করেছে বলে জানিয়েছে। কোম্পানিগুলোর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে তারা নিট ৩ হাজার ৩৪৯ কোটি টাকার মুনাফা করেছিল। অর্থাৎ বছরের ব্যবধানে এসব কোম্পানির নিট মুনাফা কমেছে ১ হাজার ৪০৮ কোটি টাকা বা ৪২ শতাংশ।

যেমন, ওষুধ খাতের কোম্পানি রেনাটা দেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত সেরা কোম্পানিগুলোর একটি। গত বছরের জুলাই-ডিসেম্বর সময়ে এ কোম্পানির ইপিএস অর্জিত হয়েছে ১৮ টাকা ৫২ পয়সা, যা আগের হিসাব বছরের একই সময়ে ছিল ২৩ টাকা ৯৪ পয়সা। অর্থাৎ এ কোম্পানির নিট মুনাফা কমেছে সাড়ে ২২ শতাংশের বেশি। একইভাবে বেক্সিমকো লিমিটেডের মুনাফা কমেছে ১৩ শতাংশ, বেক্সিমকো ফার্মার সাড়ে ১৫ শতাংশ।

এ ছাড়া মতিন স্পিনিং, এএমসিএল প্রাণ, বিডি ল্যাম্পস, স্কয়ার টেক্সটাইল, ন্যাশনাল টি, সামিট পাওয়ার, মির আকতার লিমিটেডসহ বহু কোম্পানির মুনাফা কমেছে। এর মধ্যে ওয়ালটন, সিঙ্গার বাংলাদেশের মতো ইলেকট্রনিকস পণ্য প্রস্তুতকারী কোম্পানিগুলোর মুনাফা কমার হার ছিল অনেক বেশি।

কোম্পানিগুলো ব্যাপক মুনাফা কমার জন্য চলমান অর্থনৈতিক সংকটকে দায়ী করছে। দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা বলেন, ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে বিশ্বব্যাপী মূল্যস্ফীতি হয়েছে। প্রায় সব ধরনের পণ্য মূল্য অনেক বেড়েছে। বাংলাদেশে কোম্পানিগুলোর ব্যবসা কাঁচামাল আমদানিনির্ভর। এ কারণে উৎপাদন খরচ বেড়েছে। দফায় দফায় গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি উৎপাদন খরচে ক্রমাগত চাপ তৈরি করছে।

তবে কয়েকটি কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) পর্যায়ের কয়েকজন জানান, মূল্যস্ফীতি ব্যবসা খরচ যতটা না বাড়িয়েছে, তার থেকে বেশি সমস্যা করেছে ডলারের বিপরীতে টাকার মূল্যমান হ্রাস। হঠাৎ করে ডলারের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় ডলার সংকট তৈরি হয়। আমদানি খরচ মেটাতে অনেক ব্যাংকের কাছ থেকে উচ্চ মূল্যে ডলার কিনতে গিয়ে কিছু কোম্পানির লোকসান হয়েছে বলে জানিয়েছে।

দেশের অন্যতম মার্চেন্ট ব্যাংক আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, কাঁচামাল, ডলার, বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বেড়েছে। কিন্তু নানা কারণে কোম্পানিগুলো তাদের পণ্যের মূল্য ওই হারে বাড়াতে পারছে না। ফলে তাদের লোকসান হবে অথবা মুনাফা কমবে।

শেয়ারবাজারের লেনদেনে বেশিরভাগ কোম্পানির মুনাফা কমার কী ধরনের প্রভাব রয়েছে- এমন প্রশ্নে মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, যখন কোনো কোম্পানির মুনাফা কমে যায়, তখন ওই কোম্পানির শেয়ারদর কমে যায়- এটাই শেয়ারবাজারের স্বাভাবিক প্রবণতা। কিন্তু এখনও অধিকাংশ শেয়ারে ফ্লোর প্রাইস বা সর্বনিম্ন মূল্যসীমা কার্যকর থাকায় শেয়ারগুলোর দর সমন্বয় হচ্ছে না। এ কারণে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের ক্রেতা নেই। সম্ভাব্য বিনিয়োগকারীরা ততক্ষণ শেয়ার কিনবেন না, যতক্ষণ না সেগুলোর দরের সঙ্গে এর মুনাফার হিসাবে সামঞ্জস্যপূর্ণ না হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.