রাখাইনে জান্তার আরও দুটি ঘাঁটি দখল নিল আরাকান আর্মি

0
51
দখল করা ঘাঁটি থেকে উদ্ধার করা অস্ত্র। ছবি: ইরাবতী

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের ম্রাউক ইউ ও কিয়াউকতাও শহরে জান্তা বাহিনীর আরও দুটি ঘাঁটি দখলের দাবি করেছে আরাকান আর্মি (এএ)। মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম দ্য ইরাবতী।

জান্তাবিরোধী এ বিদ্রোহী গোষ্ঠী জানিয়েছে, কয়েক দিন লড়াইয়ের পর সোমবার সকালে জান্তা বাহিনীর একটি ব্যাটালিয়নের (লাইট ইনফ্যানট্রি ব্যাটালিয়ন-এলআইবি ৩৭৮) সদর দপ্তর দখল করা হয়েছে। এর আগ গত মঙ্গলবার আরকান আর্মি পাশের এলআইবি ৫৪০ ঘাঁটি দখল করে। এছাড়া শহরের এলআইবি ৩৭৭-এর ঘাঁটিতে হামলা চালানো হচ্ছে।

আরাকান আর্মি জানিয়েছে, জান্তা বাহিনীর ওই তিন ব্যাটালিয়নের ঘাঁটি থেকে ম্রাউক ইউ শহরের আবাসিক এলাকা ও আশপাশের গ্রামগুলোতে গোলাবর্ষণ করা হচ্ছিল। গত ২ ফেব্রুয়ারি কিয়াউকতাও শহরে এলআইবি ৩৭৬ সদর দপ্তর দখল করে আরাকান আর্মি। এছাড়া মিনবিয়া, কিয়াকতাও ও ম্রাউক ইউ শহরের অন্যান্য জান্তা ঘাঁটিগুলোতে হামলা চালিয়েছে যোদ্ধারা।

তারা আরও জানায়, আরাকান আর্মি আকাশ ও সমুদ্র থেকে জান্তা বাহিনীর বোমাবর্ষণের মাঝেই রাথেডং, পোন্নাগিউন, রামরি এবং অন শহরে সংঘর্ষ চলছে। মংডু শহরের বাংলাদেশ সীমান্ত লাগোয়া টাং পিয়ো সীমান্ত ফাঁড়িতে হামলা চালিয়েছে আরাকান আর্মি। রোববার ও সোমবার প্রায় ৯০ জন জান্তা সৈন্য সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে গেছে।

সোমবার বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিবি) জানিয়েছে, মিয়ানমারের প্রায় ১০০ জন সীমান্তরক্ষী বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছেন।

গত ১৩ নভেম্বর থেকে উত্তর রাখাইন ও পাশের দক্ষিণ চিন রাজ্যের পালেতওয়া শহরজুড়ে জান্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে হামলা চালিয়ে আসছে আরাকান আর্মি। গোষ্ঠীটি বলেছে, রাখাইনের রাজধানী সিত্তের কাছের পাউকতাও শহর ও পুরো পালেতওয়াসহ অন্যান্য এলাকায় জান্তা বাহিনীর অন্তত ১৭০টি অবস্থান দখল করেছে আরাকান আর্মি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.