রণবীরের সঙ্গে সেই অন্তরঙ্গ দৃশ্য বিস্মিত করেছিল তৃপ্তির মা-বাবাকেও

0
77
তৃপ্তি দিমরি। ইনস্টাগ্রাম থেকে

‘অ্যানিমেল’ সিনেমায় হাতে গোনা কয়েকটি দৃশ্যে তিনি, কিন্তু তাতেও মাতিয়ে দিয়েছেন তৃপ্তি। ‘অ্যানিমেল’-এ তৃপ্তিকে জোয়া রিয়াজ নামের এক তরুণীর চরিত্রে দেখা গেছে। সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গা পরিচালিত এই ছবিতে রণবীর কাপুরের সঙ্গে তাঁর অন্তরঙ্গ দৃশ্যের স্থিরচিত্র ও ভিডিও নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।

‘অ্যানিমেল’ ছবির পোস্টারে রণবীর কাপুর ও তৃপ্তি।ইনস্টাগ্রাম থেকে
‘অ্যানিমেল’ ছবির পোস্টারে রণবীর কাপুর ও তৃপ্তি।ইনস্টাগ্রাম থেকে

সেই দৃশ্য নিয়ে কিছুদিন আগে মুখ খুলেছেন তৃপ্তি। এবার এই অভিনেত্রী জানালেন দৃশ্যটি নিয়ে তাঁর মা-বাবার প্রতিক্রিয়া।

বলিউড হাঙ্গামাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তৃপ্তি বলেন, ‘আমার মা-বাবা কিছুটা বিস্মিত হয়েছিলেন। তাঁরা বলেছিলেন, আমি যা করেছি, সিনেমায় তাঁরা আগে এমন কিছু দেখেননি। ওই দৃশ্য দেখার পর স্বাভাবিক হতেও তাঁদের সময় লেগেছিল। তাঁরা বলেন, “তুমি এটা না করলেও পারতে। তবে ঠিক আছে, মা-বাবা হিসেবে আমাদের তো এটা মনে হবেই।”’

উত্তরে মা-বাবাকে কী বলেছিলেন, সাক্ষাৎকারে সেটাও জানান তৃপ্তি।

তৃপ্তি দিমরি। ইনস্টাগ্রাম থেকে
তৃপ্তি দিমরি। ইনস্টাগ্রাম থেকে

তিনি বলেন, ‘এটা আমার কাজ। যতক্ষণ পর্যন্ত আমি নিরাপদ বোধ করব, ততক্ষণ এসব দৃশ্য নিয়ে সমস্যা দেখি না। আমি একজন অভিনয়শিল্পী। তাই যে চরিত্রে অভিনয় করব, তা নিয়ে এক শ শতাংশ সৎ থাকব।’

এর আগে তিনি ই-টাইমসকে এক সাক্ষাৎকারে এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘শুরুতে এসব আমাকে অস্বস্তিতে ফেলত। বিরক্ত বোধ করতাম। আমি এমন একজন, যাকে সমালোচনার মুখোমুখি খুব কমই হতে হয়েছে। খুব সামান্যই সমালোচিত হয়েছি।

আমার প্রথম কিছু সিনেমার ক্ষেত্রে ১০ শতাংশ সমালোচিত হয়েছি, আবার ৯০ শতাংশ প্রশংসিত হয়েছি। এই ছবির ক্ষেত্রে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাচ্ছি। তাই শুরুতে কিছুটা ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। আর নিজেকে সবার থেকে দূরে রাখছিলাম। কিন্তু পরে আমি নিজের সঙ্গে সময় কাটিয়েছি, আর এ ব্যাপারে ভেবেছি।’

তৃপ্তি দিমরি। ইনস্টাগ্রাম থেকে
তৃপ্তি দিমরি। ইনস্টাগ্রাম থেকে

এদিকে মুক্তির পর নানা বিতর্ক হলেও বক্স অফিসে দারুণ ব্যবসা করছে ছবিটি। এর মধ্যেই ভারতের বাজার থেকে প্রায় ৪০০ কোটি রুপি আয় করেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.