যুবলীগের নেতা পরিচয় দেওয়া টিনু রিমান্ডে

0
966
নূর মোস্তফা টিনু।

চট্টগ্রামে যুবলীগের নেতা হিসেবে পরিচয় দেওয়া নূর মোস্তফা টিনু (৪৫) ও তাঁর সহযোগীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। টিনুর ওই সহযোগী হলেন জসিম উদ্দিন।

আজ বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম খায়রুল আমীন শুনানি শেষে এই আদেশ দেন।

গত রোববার রাতে নগরের কাপাসগোলার বাসায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্র, গুলিসহ টিনুকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। অভিযানে একটি পিস্তল, শটগান ও ৭২টি গুলি উদ্ধার হয়। গ্রেপ্তার করা হয় সহযোগী জসিম উদ্দিনকে। এ ঘটনায় র‍্যাব মামলা করেছে। র‍্যাবের দাবি, তাঁর ‘নিয়ন্ত্রণাধীন’ এলাকার ফুটপাত, কোচিং সেন্টার, শপিং মল ও টমটম (গাড়ি) থেকে সহযোগীদের মাধ্যমে মাসে ৫০ লাখ টাকা চাঁদা আদায় করা হয়।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবুদ্দিন আহমেদ তাঁর কার্যালয়ে বলেন, টিনু ও তাঁর সহযোগীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পাঁচলাইশ থানার পুলিশ সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করে। সেখানে বলা হয়, তাঁর কাছ থেকে উদ্ধার অস্ত্র–গুলির উৎস ও চাঁদাবাজির অভিযোগ সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন। শুনানিতে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাঁদের দুজনকে ষড়যন্ত্রের শিকার দাবি করে রিমান্ড বাতিলের আবেদন করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত টিনু ও তাঁর সহযোগীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে এক দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে টিনুকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে দুপুরে আদালতে হাজির করা হয়। আদালত প্রাঙ্গণে তাঁর সহযোগীরা জড়ো হয়ে স্লোগান দেন। পুলিশ তাঁদের সরিয়ে দেয়।

পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাসেম ভূঁইয়া বলেন, আদালতের আদেশ পাওয়ার পর টিনু ও তাঁর সহযোগীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কারাগার থেকে থানায় আনা হবে।

র‍্যাব ও পুলিশ সূত্র জানায়, টিনু তাঁর বাহিনী দিয়ে চকবাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় আধিপত্য বজায় রাখতেন। র‍্যাবের অভিযানে তাঁর সহযোগীরা আত্মগোপনে চলে যান। তাঁদের মাধ্যমে ফুটপাত, কাঁচাবাজার, টমটম, জুয়ার আসর, নির্মাণাধীন ভবন, কোচিং সেন্টার ও শপিং মল থেকে চাঁদা তুলতেন তিনি। গত সোমবার থেকে তাঁদের কাউকে এলাকায় দেখছেন না স্থানীয় বাসিন্দারা। এতে স্বস্তিতে রয়েছেন তাঁরা। চকবাজার এলাকার ফুটপাতে এক তরকারি বিক্রেতা প্রথম আলোকে বলেন, পাপ বাপরেও ছাড়ে না। কত দিন তাঁদের কবজা থেকে তাঁরা মুক্ত থাকতে পারেন, সেটি দেখার বিষয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে