মুশফিকের ‘অজানা তথ্য’ জানালেন তামিম

0
94
মুশফিকের অজানা তথ্য বললেন তামিম।

তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন দুজন শনিবার রাত সাড়ে ১০টায় আড্ডা দিতে আসবেন ইনস্টাগ্রামে। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী বাংলাদেশের দুই তারকা ক্রিকেটার এলেন ‘লাইভে’।

খেলার সময় সংবাদ সম্মেলন কিংবা সাংবাদিকদের দেওয়া সাক্ষাৎকারে অনেক রাখঢাক রেখে কথা বলতে হয় তাঁদের। কিন্তু এই আড্ডায় তামিম-মুশফিক খুলে দিয়েছিলেন মনে দুয়ার। কী প্রাণবন্ত আলোচনা, কী হাস্যরসে ভরপুর, দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের মতো আধঘণ্টার আলোচনাটা হলো ভীষণ উপভোগ্য।

তামিম-মুশফিক ড্রেসিংরুমের অনেক গল্পই বলেছেন। এর মধ্যে একটি ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ওভালে ঘটে যাওয়া। তামিম জানালেন, মুশফিক সাধারণ একাধিক সিট নিয়ে বসেন ড্রেসিংরুমে। ২০১৭ চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচেও মুশফিক তিনটা সিট নিয়ে বসেছিলেন। তামিম যখন বললেন, ‘ওভালের ড্রেসিংরুমটা খুব ছোট। মুশফিকের একটা ভালো অভ্যাস আছে যে সে এক সিটে বসতে পারে না। তার তিন-চারটা সিট লাগে। তাছাড়া ওর কাজ হয় না।’ ঠিক তখনই মুশফিকের আপত্তি, ‘এটা কিন্তু বেশি হয়ে গেল। আমরা যে জিনিস, তার জন্য ততটুকু জায়গা তো লাগবেই। আমি কিন্তু কাউকে বিরক্ত করি না।’
মুশফিকের ব্যাখ্যা শুনে-টুনে তামিম ফিরে গেলেন আবার চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে, ‘আমি এসে দেখলাম মুশফিক তিনটা সিট নিয়ে বসে আছে। জানতে চাইলাম, কী ব্যাপার তিনটা সিট নিয়ে বসে আছিস?”

আমি জানতাম, তুই এটা বলবি আমাকে। আর কেউ বলবে না’, খানিকটা রেগেই মুশফিক ব্যাট নিয়ে চলে গেলেন বাথরুমে। মজার ব্যাপার, মুশফিক সিট ছেড়ে চলে গেলেও ভয়ে নাকি পুরো ম্যাচে তাঁর আসনে আর কেউ বসেনি। মুশফিক সেই ম্যাচে করলেন ৭৯ আর তামিম খেললেন ১২৮ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। ঠিক একই মাঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পরের ম্যাচে মুশফিক করলেন কি, চলে গেলেন বাথরুমে। মুশফিককে তামিমের তাই প্রশ্ন, ‘ওই মাঠে যখন পরের ম্যাচে খেলতে এলাম, তুই আগেই বাথরুমে বসলি কেন? এটা কি কুসংস্কার যে আগের ম্যাচে ৭০-৮০ করেছিলি?’

মুশফিকের যুক্তি, ‘আমার কাছে এটা কুসংস্কার নয়। অনেকের ক্ষেত্রে এটা কাজ করে যে এই ব্যাট বা এই গ্লাভসটা ব্যবহার করি। আমার যেটা মনে হয়েছে নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস জন্মানো। যাওয়ার আগে ভালো একটা অনুভূতি অনুভব করা। তুই যেখানে সেঞ্চুরি, ডাবল সেঞ্চুরি করেছিস সেখানে একটা ভালো অনুভূতি থাকে না যে আমি আবার ভালো করব। শুধু ওখানে না।

যেকোনো ড্রেসিংরুমে বসার পর যদি ভালো খেলি, ওই স্মৃতিটা আবার চাই মনে করতে। আমার পুরো আস্থা আল্লাহর ওপর। আর ওটা বাথরুম ছিল না। ছিল শাওয়ার রুম।’

বাথরুম হোক আর শাওয়ার রুম, এবার মুশফিককে তামিমের পরামর্শ, ‘আমার কেন যেন মনে হয় তুই যদি কমোডের ওপরও বসিস, সেঞ্চুরি করবি পরের ম্যাচে!’
এ কথা শুনে মুশফিক এবার হেসেই বাঁচেন না।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে