মারভেল-ভক্ত বনাম জেনিফার অ্যানিস্টোন

0
222
জেনিফার অ্যানিস্টোন। ছবি: রয়টার্স

হলিউড তারকা জেনিফার অ্যানিস্টোন সম্প্রতি মারভেল সিনেমাটিক ইউনিভার্সের চলচ্চিত্র নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন, তাতে বেজায় খেপেছেন ‘অ্যাভেঞ্জার্স’, ‘স্পাইডার ম্যান’, ‘থর’ বা ‘ক্যাপ্টেন আমেরিকা’র ভক্তরা।

৫০ বছর বয়সী জেনিফার অ্যানিস্টোন শিগগিরই ছোট পর্দায় ফিরবেন ‘দ্য মর্নিং শো’ নিয়ে। আগামী ১ নভেম্বর থেকে অ্যাপল টিভিতে দেখানো হবে এই শো। ‘ব্রুস অলমাইটি’, ‘মার্লে অ্যান্ড মি’, ‘হরিবল বসেস’-এর মতো ব্লকবাস্টার হিট ছবি উপহার দেওয়া এই অভিনেত্রীর কাছে আবারও ছোট পর্দায় ফেরার কারণ জানতে চাওয়া হয়।

ফ্রি প্রেস জার্নালের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে,অ্যামিজয়ী এই অভিনয়শিল্পী জানিয়েছেন, কয়েক বছর ধরে তিনি অনলাইন স্ট্রিমিং প্লাটফর্মগুলোর বেড়ে ওঠা আর ছড়িয়ে পড়া দেখেছেন। তাঁর মনে হয়েছে, ছোট পর্দায় তিনি যা করেছেন, তার চেয়ে অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলো এখন অনেক ভালো করছে।

জেনিফার অ্যানিস্টোন। ছবি: রয়টার্স

জেনিফার অ্যানিস্টোন আরও বলেন, ‘মানুষ এখন যা পাচ্ছে, তা-ই দেখছে। বিশেষ করে বড় বড় মারভেল ছবিগুলো। এই মারভেল ছবিগুলোই বিশ্বের সিনেমাহলগুলোতে সহজলভ্য। আর এই ছবিগুলো বিশ্বের চলচ্চিত্র ব্যবসাকে সংকুচিত করে ফেলেছে।’ তিনি চান, বড় পর্দায় ফিরে আসুক মেগ রায়ানের যুগ। আর ‘সুপারহিরো’ নির্ভর মারভেল ছবির সংখ্যা কমে যাক।

জেনিফার অ্যানিস্টোনের এই বিবৃতিতে বেজায় খেপেছেন মারভেল ইউনিভার্সের ছবির ভক্তরা। একজন তো টুইটারে অ্যানিস্টোনকে বাড়ি গিয়ে নিজের বস্তাপচা ছবি দেখার জন্য উপদেশ দিয়েছেন। আরেকজন লিখেছেন, ‘আমি দুঃখিত। আমি কোন ছবি দেখব, কী দেখব না, সেটা তিনি ঠিক করে দেবেন? আমার যা ভালো লাগে, তা-ই দেখব।’ আরেকজন সতর্ক করে লিখেছেন, ‘সুপারহিরো ছবি নিয়ে কোনো বাজে কথা নয়। আপনার প্যানপেনে ছবির চেয়ে এই সুপারহিরো ছবিগুলো ঢের ভালো।’

ব্র্যাড পিট ও জেনিফার অ্যানিস্টোন। ছবি: রয়টার্স

অন্যজন আবার যুক্তি দিয়ে বলেছেন, ‘হলগুলোতে কেবল মারভেল সিনেমাটিক ইউনিভার্সের ছবিই দেখানো হয়, এটা ভুল। সব ধরনের ছবিই দেখানো হয়। মারভেলের ছবিগুলো চলে ভালো।’

জেনিফার অ্যানিস্টোনের প্রথম স্বামী হলিউড তারকা ব্র্যাড পিট আর দ্বিতীয় স্বামী অভিনেতা, পরিচালক ও চিত্রনাট্যকার জাস্টিন থেরক্স। ২০০৫ সালে পিট ও অ্যানিস্টনের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। আর ২০১৮ সালে বিচ্ছেদ হয় থেরক্সের সঙ্গে। শোনা যাচ্ছে, এখন নাকি ব্র্যাড পিটের সঙ্গে আবার বন্ধুত্ব বাড়ছে জেনিফার অ্যানিস্টোনের।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে