বেতন বাড়ল ৭৬৮ টাকা, কর্মীদের কাছে ক্ষমা চাইল কোম্পানি

0
41
চীনের একটি প্রতিষ্ঠান

প্রতিষ্ঠানটির ওই অভ্যন্তরীণ নথিতে বলা হয়েছে, ‘আপনাদের অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাতে হচ্ছে যে চলতি বছর বেতন বৃদ্ধির ফলে কর্মীরা মাসে ৫০ ইউয়ান বেশি পাবেন। বেতন হিসাবে এটা খুবই নগণ্য পরিমাণ, তবে এটা অব্যাহত থাকবে। আমরা সবাই মিলে যদি প্রতিষ্ঠানের উন্নতি করতে পারি, তাহলে মর্যাদার সঙ্গে জীবন যাপন করতে পারব।’

এ বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির মানবসম্পদ ব্যবস্থাপক লিয়াওর সঙ্গে চীনা গণমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট কথা বলেছে। তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠানটি গত বছর ব্যবসায়িক উদ্দেশ্য পূরণে ব্যর্থ হয়েছে। এর পেছনে কোভিড-১৯–এর লকডাউন, চীনের আবাসন খাতে মন্দা ও গত গ্রীষ্মে রেকর্ড তাপদাহের সময় বিদ্যুৎ–বিভ্রাটের বিষয়টি উল্লেখ করেছেন।

এই সামান্য পরিমাণ বেতন বৃদ্ধির কারণ হিসেবে প্রতিষ্ঠানটি গত বছর জটিল অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে আয় কমে যাওয়াকে দায়ী করেছে।

লিয়াও আরও বলেন, ‘২০২২ সাল আমাদের জন্য খুব কঠিন ছিল। তবে এমন পরিস্থিতিতেও আমরা কর্মীদের নিরাপত্তা ও সুন্দর জীনযাপনের সুযোগ দিতে চাই। প্রতিষ্ঠানে কাজ করা ছয় হাজারের বেশি কর্মী মাসে ওই পরিমাণ বেতন বেশি পাবেন। এতেও আমাদের কর্মীরা আনন্দিত। কারণ, প্রতিষ্ঠানটি কীভাবে লড়াই করে যাচ্ছে, তা তাঁরা সবাই দেখেছেন।’

প্রতিষ্ঠানটির অভ্যন্তরীণ নথি ভাইরাল হওয়ার পর কর্মী ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা প্রতিষ্ঠানের প্রচেষ্টা ও সততার প্রশংসা করেছেন।

২০২২ সাল আমাদের জন্য খুব কঠিন ছিল। তবে এমন পরিস্থিতিতেও আমরা কর্মীদের নিরাপত্তা ও সুন্দর জীনযাপনের সুযোগ দিতে চাই। প্রতিষ্ঠানে কাজ করা ছয় হাজারের বেশি কর্মী মাসে ওই পরিমাণ বেতন বেশি পাবেন। এতেও আমাদের কর্মীরা আনন্দিত। কারণ, প্রতিষ্ঠানটি কীভাবে লড়াই করে যাচ্ছে, তা তাঁরা সবাই দেখেছেন।লিয়াও, মেইক্সিনের মানবসম্পদ ব্যবস্থাপক

চীনের মাইক্রোব্লগিং প্ল্যাটফর্ম উইবোতে ব্যবহারকারীরা প্রতিষ্ঠানের এমন উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। একজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘বেতন কমানোর পরিবর্তে ৫০ ইউয়ান বেতন বৃদ্ধি করা খারাপ কিছু নয়। সর্বোপরি, গত বছর তো অনেক কঠিন ছিল।’

আরেকজন ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘প্রতিষ্ঠানটির ঘোষণা আশ্চর্যজনক সুন্দর ছিল। আমার প্রতিষ্ঠান আমাদের কৃতজ্ঞ হওয়ার পরিবর্তে শিক্ষা দিয়ে যাচ্ছে।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.