বিশ্বকাপ পাওয়ার র‌্যাঙ্কিং: ব্রাজিল-ফ্রান্সের লিড, আটে আর্জেন্টিনা

0
65
বিশ্বকাপ পাওয়ার র‌্যাঙ্কিং

কাতার বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের দুটি করে ম্যাচ হয়ে গেছে। দুই ম্যাচ থেকে বিশ্বকাপে আসা দলগুলোর শক্তি-দুর্বলতার ধারণা মিলেছে। এরই মধ্যে ব্রাজিল, ফ্রান্স, পর্তুগাল শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে। দলগুলোর পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে বিশ্বকাপের পাওয়ার র‌্যাঙ্কিং করেছে ফুটবল বিষয়ক সংবাদ মাধ্যম গোল।

ব্রাজিল: বিশ্বকাপের পাওয়ার র‌্যাঙ্কিংয়ে ব্রাজিল শীর্ষে আছে। ২০০২ বিশ্বকাপের পর এই প্রথম সেলেকাওরা আসরের শুরুর দুই ম্যাচেই জয় পেয়েছে। ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ যেমন তিতের দলের হাতে ছিল, তেমনি কর্তৃত্বও করেছে ল্যাতিন দলটি।

ফ্রান্স: র‌্যাঙ্কিংয়ে দুইয়ে আছে ফ্রান্স। পারফরম্যান্স বিচারে এখন পর্যন্ত আসরের সেরা দল তারা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বড় জয়ে আসর শুরু করে গত আসরের চ্যাম্পিয়নরা। ডেনমার্কের বিপক্ষে কর্তৃত্ব করেই জিতেছে লেস ব্লুজরা। দলটি যে ইনজুরি জর্জরিত দুই ম্যাচে তা বোঝাই যায়নি।

সুইসদের বিপক্ষে কাসেমিরোর গোল। ছবি: এএফপি

স্পেন: বিশ্বকাপ র‌্যাঙ্কিংয়ে তিনে আছে স্পেন। লুইস এনরিকের তরুণ দলটাকে বিশ্বকাপের ফেবারিট বলা হচ্ছে। কেন তারা ফেবারিট কোস্টারিকাকে বিধ্বস্ত করে বুঝিয়ে দিয়েছে। জার্মানির বিপক্ষে জিততে না পারলেও স্পেন অসাধারণ ফুটবল খেলেছে।

পর্তুগাল: দুই ম্যাচেই বিতর্কিত পেনাল্টি পেয়েছে পর্তুগাল। দুই ম্যাচেই প্রথমার্ধে সমতার পর দ্বিতীয়ার্ধে গোল করেছে। পর্তুগালের কাছে আরও ভালো ফুটবল প্রত্যাশা ছিল ভক্তদের। তবে দুই ম্যাচে হতাশ করেনি দলটি। চারে আছে রোনালদোরা।

ইংল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস ও ক্রোয়েয়িশা: ইরানের বিপক্ষে বড় জয় পেলেও যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে জিততে পারেনি ইংল্যান্ড। ফেবারিট হয়ে বিশ্বকাপে আসা নেদারল্যান্ডস আটকে গেছে ইকুয়েডরে। আবার কানাডার বিপক্ষে ক্রোয়েশিয়া জিতলেও মরক্কোর বিপক্ষে সমতায় আসার শুরু করেছিল। ইংল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস ও ক্রোয়েশিয়া পাওয়ার র‌্যাঙ্কিংয়ে যথাক্রমে পাঁচ, ছয় ও সাতে আছে।

অনুশীলনে এমবাপ্পে। ছবি: এএফপি

আর্জেন্টিনা: এখনও মন জয় করা ফুটবল দেখাতে পারেনি আর্জেন্টিনা। সৌদি আরবের বিপক্ষে হেরে বিস্ময় উপহার দিয়েছে। মেক্সিকোর বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতলেও প্রত্যাশিত ফুটবল দেখাতে পারেনি আলবিসেলেস্তেরা। পাওয়ার র‌্যাঙ্কিংয়ে মেসিরা আছেন আটে।

সেরা দশে পোল্যান্ড, মরক্কো: বিশ্বকাপ পাওয়ার র‌্যাঙ্কিংয়ে নয়ে আছে পোল্যান্ড। রবার্ট লেভানডভস্কির দল এখনও হারেনি। যদিও তাদের খেলায় ইউরোপের সুবাস মেলেনি। নকআউটও নিশ্চিত নয় তাদের। মরক্কো আছে দশে। তারা ক্রোয়াটদের প্রথম ম্যাচে আটকে দিয়েছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে বেলজিয়ামকে হারিয়েছে।

হতাশ করেছে বেলজিয়াম, জার্মানি, ডেনমার্ক: বিশ্বকাপের পাওয়ার র‌্যাঙ্কিংয়ে ফেবারিট হয়ে বিশ্বকাপে আসা বেলজিয়াম আছে ১৪তে। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে দুইয়ে থাকা দলটি গ্রুপ পর্বে বিদায়ও নিতে পারে। ডেনমার্ককে বলা হচ্ছিল আসরের ‘ডার্ক হর্স’। তারাও হতাশ করেছে। র‌্যাঙ্কিংয়ে আছে ১৩তম অবস্থানে। বিদায়ের শঙ্কা আছে তাদেরও। সবচেয়ে বিপদে ছিল জার্মানি। এখনও বিপদ কাটেনি। তবে নকআউটে যাওয়ার সুযোগ আছে। বিশ্বকাপে র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৫তম অবস্থানে আছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.