বাফুফে থেকে আইফোন পেলেন সানজিদা

0
77
সানজিদা আক্তার

দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জিতে রাজসিক প্রত্যাবর্তন ঘটে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের। বুধবার দেশে ফিরলে বিমানবন্দর থেকে বাফুফে পর্যন্ত ছাদখোলা বাসে পুরো শহর প্রদক্ষিণ করেন সাফজয়ী চ্যাম্পিয়নরা। তবে এর মধ্যেই বিমানবন্দরে ঘটে এক অপ্রীতিকর ঘটনা। কৃষ্ণাদের লাগেজ ভেঙে ডলার, টাকা ও উপহারসামগ্রী চুরির ঘটনা ঘটে।

যদিও বাফুফের অভিযোগের পর এ ঘটনার সত্যতা পায়নি বলে জানিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। তাদের সিসিটিভি ফুটেজেও ধরা পড়েনি চুরির কোনো ঘটনা।

এর আগে বাফুফের নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ জানিয়েছিলেন, চুরি যাওয়া অর্থ ফেরত পাওয়া না গেলে বাফুফে থেকে আমরা এটার ক্ষতিপূরণ দেবো।

কথা রাখলো বাফুফে, বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের ব্যক্তিগত উদ্যোগে তিন খেলোয়াড় সানজিদা, কৃষ্ণা ও সামসুন্নাহারকে ক্ষতিপূরণ তুলে দেন মাহফুজা আক্তার কিরণ।

সানজিদার স্বপ্ন পূরণ করতে বাফুফে থেকে তাকে আইফোন দেওয়া হয়েছে। ৫০০ ডলার হারিয়ে কৃষ্ণা রানী সরকার পেয়েছে দেড় লক্ষ টাকা। ৪০০ ডলার হারিয়ে শামসুন্নাহার পেয়েছে ১ লক্ষ টাকা।

এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে কাঠমান্ডু থেকে ঢাকা পৌঁছানোর পর রাতে দুই ফুটবলার কৃষ্ণা রানী সরকার ও শামসুন্নাহার আবিস্কার করেন, তাদের লাগেজ কাটা হয়েছে। কৃষ্ণার লাগেজে ৯০০ ইউএস ডলার (যার মধ্যে সানজিদা আক্তারের ৪০০ ডলার ছিল) আর ৫০ হাজার টাকা ছিল। শামসুন্নাহারের লাগেজ কেটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ৪০০ ইউএস ডলার।

কঠোর পরিশ্রম এবং ফুটবল খেলে যেটুকু উপার্জন করেছেন, তা দিয়ে একটা আইফোন কেনার স্বপ্ন ছিল সানজিদার। কিন্তু ছাদ খোলা বাসে চড়ার স্বপ্নপূরণের দিনেই ভেঙে গিয়েছিল তার আইফোন কেনার স্বপ্ন। বৃহস্পতিবার সমকাল কার্যালয়ে এসে সানজিদা জানিয়েছেন, ‘স্বপ্ন ছিল আমি একটা আইফোন কিনব। কৃষ্ণারা যে ডলার হারাইছে সেখানে আমারও ডলার ছিল। আমারও কিছু টাকা ছিল। একসঙ্গে দু’জনের টাকা ছিল। ভাবছিলাম প্রাইজমানির টাকাগুলো জমিয়ে একটা আইফোন কিনব। তো স্বপ্নটা আর পূরণ হলো না। টাকা তো আমার চুরি হয়ে গেছে এয়ারপোর্ট থেকে।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.