বাংলাদেশের মিষ্টি সকাল, দুর্দান্ত দুপুর

0
55
তাইজুল আজ বাংলাদেশকে এগিয়ে দিয়েছেন

তাইজুলের ৭ উইকেটের আনন্দ

তাইজুলের ৭ উইকেটের আনন্দ

বাংলাদেশকে মিষ্টি একটা সকাল উপহার দেওয়ার পর দুপুরটাও দুর্দান্ত করে দিয়েছেন তাইজুল। বাংলাদেশের বাঁহাতি স্পিনার প্রথম সেশনে নিয়েছেন ৩ উইকেট, দ্বিতীয় সেশনে নিয়েছেন ৪টি। সব মিলিয়ে ১১৬ রান দিয়ে এই ইনিংসে তাঁর উইকেট ৭টি। গতকাল বল হাতে লড়াই করা বাংলাদেশও দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে প্রথম ইনিংসে লিড নিয়েছে ৪৪ রানের।

বাংলাদেশের বোলাররা যখন ছড়ি ঘোরাচ্ছিলেন পাকিস্তানের ইনিংসে, বিরুদ্ধ স্রোতে শতকের দিকে এগিয়ে যেতে থাকেন আগের দিন ৯৩ রানে অপরাজিত থাকা আবিদ আলী। তাইজুলের জোড়া আঘাতের পর অধিনায়ক বাবর আজমকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়া আবিদ আলী তাঁর চতুর্থ টেস্ট শতক পূর্ণ করেন ৬৮তম ওভারে। তাইজুলেরই ওভার ছিল সেটি, প্রথম বলে ডিপ মিডউইকেটে খেলে ২ রান নিয়ে শতক পূর্ণ করেন আবিদ আলী।

ইবাদত নিয়েছেন ২ উইকেট

ইবাদত নিয়েছেন ২ উইকেট

আবিদ আলী সেঞ্চুরি পেলেও বাবরের সঙ্গে তাঁর জুটিটি খুব বেশি বড় হয়নি। ৮৮ বলে ২৩ রানের জুটিটি ভাঙেন অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। পাকিস্তান অধিনায়ককে ফিরিয়েছেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ৪৬ বলে ১০ রান করেছেন বাবর। আবিদ আলী ফাওয়াদ আলমের সঙ্গে। ফাওয়াদও খুব বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি। তাঁকে ফিরিয়েছেন তাইজুল। আবিদ জুটি বাঁধেন মোহাম্মদ রিজওয়ানের সঙ্গে। মধ্যাহ্নভোজের বিরতির আগে আর কোনো উইকেট পড়তে দেননি তাঁরা। পাকিস্তান মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে যায় ৪ উইকেটে ২০৩ রান তুলে।

আবিদ শতক পেলেও দলের বিপর্যয় ঠেকাতে পারেননি

আবিদ শতক পেলেও দলের বিপর্যয় ঠেকাতে পারেননি

মধ্যাহ্নভোজের বিরতির পর জ্বলে ওঠেন ইবাদত। রিজওয়ানকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলে ফেরানোর পর তিনি বোল্ড করেন সাজিদ খানকে। তবে এই সেশনেও বাংলাদেশের সেরা বোলার তাইজুলই। শতক করা আবিদ আলীর সঙ্গে তিনি তুলে নেন আরও দুই আলী হাসান ও নোমান এবং ফাহিম আশরাফকে। আউট হওয়ার আগে ২৮২ বলে ১৩৩ রান করেছেন আবিদ আলী। ৪৭.১৬ স্ট্রাইক রেটের ইনিংসটিতে তিনি ১২টি চারের পাশাপাশি মেরেছেন ২টি ছয়।

ইবাদত নিয়েছেন ২ উইকেট, রান দিয়েছেন ৪৭টি। এ ছাড়া মেহেদী হাসান মিরাজ ৬৮ রান দিয়ে নিয়েছেন ১ উইকেট।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে