নেত্রকোনায় পেঁয়াজের দাম বেশি রাখায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা

0
241
ফাইল ছবি

দোকানে টাঙানো মূল্যতালিকার চেয়ে পেঁয়াজের দাম ২০ টাকা বেশি রাখায় নেত্রকোনা সদর উপজেলায় এক দোকানদারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। উপজেলার ঠাকুরাকোনা বাজারে আজ শনিবার বিকেলে এই ঘটনা ঘটে।

আইন অনুযায়ী আদায়কৃত জরিমানার ২৫ শতাংশ বা আড়াই হাজার টাকা পেয়েছেন অভিযোগকারী আঞ্জুমানারা আক্তার (৫০)। তাঁর বাড়ি সদর উপজেলার দুর্গাশ্রম গ্রামে।

আঞ্জুমানারা আক্তার বলেন, আজ বেলা পৌনে তিনটার দিকে ঠাকুরাকোনা বাজারের লিটন সাহা স্টোর নামের একটি দোকানে পেঁয়াজ কিনতে যান তিনি। দোকানদার তাঁর কাছে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম চান ১০০ টাকা। কিন্তু দোকানে টাঙানো মূল্যতালিকায় প্রতি কেজি পেঁয়াজের বিক্রয়মূল্য লেখা ছিল ৭৫ টাকা। দোকানদার নির্ধারিত মূল্যে বিক্রি না করায় বাধ্য হয়ে ৯৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ কেনেন আঞ্জুমানারা। এ সময় পাশের গলিতে কয়েকটি দোকানে অভিযান চালাচ্ছিল ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের নেত্রকোনা কার্যালয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. শাহ আলমের কাছে অভিযোগ জানান আঞ্জুমানারা। পরে অভিযান পরিচালনাকারী দল তাৎক্ষণিকভাবে ওই দোকানে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯–এর ৪০ ধারা অনুযায়ী ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে।

জানতে চাইলে আঞ্জুমানারা আক্তার মুঠোফোনে বলেন, ‘কোনো জিনিস কিনে প্রতারিত হলে যে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে অভিযোগ করা যায়, সেটি আমি জানতাম না। আজ অভিযোগ দিয়ে জরিমানার টাকা থেকে ২৫ শতাংশ পেয়ে ভালো লাগছে। আশা করি, আমার মতো আরও অনেকেই সচেতন হবেন।’

জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. শাহ আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানকে আইন অনুযায়ী ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য বিক্রির অভিযোগে আরও পাঁচটি দোকানকে বিভিন্ন অঙ্কের জরিমানা করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে