নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের গুলিতে নিহত ৩

0
207
মেঙ্গালুরুতে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের দিকে পাথর ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। ছবি: রয়টার্স

ভারতজুড়ে চলছে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ঢেউ বইছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের গুলিতে ৩ জন নিহত হয়েছেন। এঁদের মধ্যে দুজন মেঙ্গালুরুতে ও একজন লক্ষ্ণৌতে । আহত বহু মানুষ। এক হাজারের বেশি মানুষকে আটক করা হয়েছে। এনডিটিভি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

সিএএর বিরুদ্ধে প্রতিবাদে পথে নেমেছেন ভারতে প্রায় ১০ রাজ্যের মানুষ। উত্তর প্রদেশ, কর্ণাটকের বিভিন্ন এলাকা, মধ্যপ্রদেশ, দিল্লি কার্যত অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। গতকাল মেঙ্গালুরুতে জারি করা হয় কারফিউ। সেখানে প্রকাশ্যে গুলি ছোড়ে পুলিশ। দুজন নিহত হন। আহত হন পুলিশের ২০ সদস্য। অন্যদিকে লক্ষ্ণৌয়ে পুলিশের গুলিতে একজন নিহত হন। আহত তিনজন।

পরিস্থিতি মোকাবিলায় বাধ্য হয়ে গুলি ছুড়তে হয়েছে বলে দাবি করে পুলিশ।

পুরো পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আজ শুক্রবার বৈঠক ডেকেছেন।

দিল্লিতে, বড় জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও আইন ভাঙায় কয়েক শ বিক্ষোভকারী, বিরোধী নেতাকে সাময়িকভাবে আটক করা হয়। দিল্লি-হরিয়ানা সীমানাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বহু জায়গায় যানবাহন পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এতে যান চলাচল ব্যাহত হয়েছে। এমনকি বিমান চলাচলও ব্যাহত হয়েছে।

বেঙ্গালুরুতে ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহসহ শতাধিক মানুষকে আটক করা হয়। একটি টেলিভিশন চ্যানেলের প্রতিনিধির সঙ্গে কথা বলার সময় রামচন্দ্র গুহকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। লক্ষ্ণৌ ও আহমেদাবাদে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। দিল্লিতে আটক হন সীতারাম ইয়েচুরি, ডি রাজা, নীলোৎপল বসু, বৃন্দা কারাট, যোগেন্দ্র যাদব, উমর খালিদের মতো নেতারা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে