নরসিংদীর পাইকারি কাপড়ের হাট ফের বন্ধ

0
285
নরসিংদীর বাবুরহাটের জামাকাপড়ের বিশাল মোকামের একটি দোকানের চিত্র।

দেশের অন্যতম বড় পাইকারি কাপড়ের হাট নরসিংদীর শেখেরচর-বাবুরহাট আবার অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন স্বাক্ষরিত এক গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, গত ২৬ এপ্রিল ব্যবসায়ীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ১১টি শর্ত সুনির্দিষ্ট করে সীমিত পরিসরে হাট খুলে দিয়েছিল জেলা প্রশাসন। সেসব শর্ত ঠিকঠাক মানতে পারেননি হাটে আসা ক্রেতা-বিক্রেতা ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। এদিকে নরসিংদী সদর উপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫৬ জনে। তাই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঝুঁকি এড়াতে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে পুনরায় অনির্দিষ্টকালের জন্য হাট বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন বলেন, সরকারিভাবে ব্যবসা-বাণিজ্য চালুর নীতিগত সিদ্ধান্ত থাকায় ও স্থানীয় ব্যবসায়ীদেরও দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ১১টি শর্ত দিয়ে বাবুরহাটে কেনাবেচার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দুঃখজনক সত্য হলো, স্বাস্থ্যবিধি ও শর্তগুলো ঠিকঠাক পালন করেননি সেখানকার ক্রেতা-বিক্রেতারা। তাই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে হাট বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি আলী হোসেন বলেন, দুই ঈদে সবচেয়ে বেশি বেচাকেনা হয় বলে ব্যবসায়ীদের দাবি অনুযায়ী এই করোনা সংক্রমণের মধ্যেই হাট খুলে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি ও শর্তগুলো ঠিকঠাক পালিত না হওয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঝুঁকি এড়াতে তা বন্ধের সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। তবে ঈদ সামনে রেখে বাবুরহাটের বেচাকেনা এমনিতেই শেষ পর্যায়ে ছিল। এরই মধ্যে ৫০০ থেকে ৮০০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছেন সেখানকার ব্যবসায়ীরা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে