তফসিল ঘোষণার দিনই হবে সরকারের অন্তিম যাত্রা: রিজভী

0
102
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকার নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে তাড়াতাড়ি তফসিল ঘোষণা করাতে চাইছে। কিন্তু সরকারকে মনে রাখতে হবে- দেশের জনগণের যে দাবি সুষ্ঠু নির্বাচন ও ভোটের অধিকার এই দাবিকে অগ্রাহ্য করলে জনগণ সেটা মানবে না। যেদিন তফসিল ঘোষণা করা হবে সেদিনই হবে এই সরকারের অন্তিম যাত্রা। জনগণের তীব্র আন্দোলনে নিশিরাতের সরকারের পতন ঘটবে।

শনিবার বিকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ২০১৪ ও ১৮ সালের নির্বাচন ছিল বিতর্কিত। বিশ্বের কোথাও সেই নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতা নেই। দেশে আর ২০১৪ আর ১৮ সালের মতো নির্বাচন হবে না। সরকার নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে তফসিল ঘোষণা করলে সেদিনই হবে সরকারের অন্তিম যাত্রা। আর সরকারের সামনে এখন একটি রাস্তাই খোলা, সেটি হলো অবিলম্বে পদত্যাগ করে নির্দলীয় সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করা।

তিনি বলেন, শুক্রবার ছাত্রলীগের ‘ছাত্র সমাবেশে’ শেখ হাসিনা মনে মনে বলছেন- তার শোনার ছেলেরা ভালো কথা বলতে পারে। কিন্তু তিনি ভাবছে না যে, তার পায়ের নিচে মাটি নেই। এতদিন তো আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করেছে। এক বছরে বিএনপির ২০ জন নেতাকর্মীকে হত্যা করেছে। অসংখ্য নেতাকর্মী পঙ্গু হয়েছে, কারও চোখ চলে গেছে, কারও হাত চলে গেছে। এতদিন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে কাজ হয়নি, এখন ছাত্রলীগ দিয়ে করবে।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, শুক্রবার ছাত্রলীগের সমাবেশ হয়েছে। আমাদেরও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান হয়েছে। এই অনুষ্ঠানে এত লোকজন হয়েছে যে সামনের রাস্তায় জায়গা হচ্ছিল না। আমাদের একদিনের প্রস্তুতি ছিল। এই যে ২৪ ঘণ্টার প্রস্তুতিতে মানুষের এত উপচেপড়া ঢল ব্যাপক তরঙ্গের সৃষ্টি হয়েছিল, এটা বলার অপেক্ষা রাখে না।

বিএনপির এই নেতা বলেন, রাষ্ট্রীয় টাকা খরচ করে সমাবেশ করে জোর করে বাস এনে মানুষের দুর্ভোগ বাড়ানো যাবে, কিন্তু জনগণের সাড়া পাওয়া যাবে না। দেশের জনগণ বুঝে গেছে জনগণের টাকা কীভাবে খরচ করছে তারা। জনগণের ওপর ১৪০ ধারা জারি করে নিজেরা জমিদারের মতো চলে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিমুজ্জামান সেলিম, বিএনপি’র বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সহ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আশরাফ উদ্দিন বকুল প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.