ডিজিটাল আর্থিক সেবা বাড়াতে ইন্টারনেটের দাম কমাতে হবে

0
131
ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহীদের সংগঠন এবিবি আয়োজিত ‘ডিজিটাল সেবায় উত্তরণ’ শীর্ষক সম্মেলনের শেষ দিনে বিভিন্ন ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহীরা। গতকাল রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে

‘পার্শ্ববর্তী অনেক দেশের তুলনায় আমাদের দেশে ইন্টারনেটের দাম অনেক বেশি। এটি দেশের প্রান্তিক মানুষকে ডিজিটাল সেবা নেওয়ার ক্ষেত্রে পিছিয়ে রেখেছে। ইন্টারনেটের দাম কমিয়ে তাঁদের অনলাইনভিত্তিক সেবার আওতায় নিয়ে আসা গেলে দেশের আর্থিক সেবার পরিসর দ্রুত বড় হবে।’ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স, বাংলাদেশের (এবিবি) চেয়ারম্যান সেলিম আর এফ হোসেন গতকাল বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই মন্তব্য করেছেন।

রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে এবিবির ‘ব্যাংকিং অন ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী সম্মেলনের শেষ দিনে সংগঠনটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। এতে এবিবি চেয়ারম্যান জানান, ব্যাংকগুলোকে আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর সেবা জোরদার করার এটাই সবচেয়ে ভালো সময়। কিন্তু কাজটা ধীরগতিতে হচ্ছে।

সেলিম আর এফ হোসেন আরও বলেন, শুধু প্রযুক্তিতে বিনিয়োগ করলে হবে না। বিনিয়োগের মাধ্যমে ব্যাংকের ব্যবসাও বাড়াতে হবে। আর এখন বিনিয়োগ করার সময়। এখনই কোনো ব্যাংক বিনিয়োগ না করতে পারলে পিছিয়ে পড়বে।

ব্র্যাক ব্যাংকে একদল ‘এথিক্যাল হ্যাকার’ নিয়োগ দেওয়া হয়েছে জানিয়ে এবিবি চেয়ারম্যান বলেন, আগে ব্যাংক খাতের জন্য অর্থনীতি-ব্যবসা সম্পর্কে জানাশোনা আছে, এমন কর্মীর দরকার হতো, এখন সেখানে শত শত প্রকৌশলীকে নিয়োগ দিতে হচ্ছে। কারণ, ভবিষ্যতে ডিজিটাল প্রযুক্তিনির্ভর ব্যাংক চালাতে তাঁদেরই প্রয়োজন হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এবিবি চেয়ারম্যান বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের বাণিজ্যের বড় অংশীদার হলেও যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসা নীতির কারণে অর্থনীতি, ব্যাংকিং ও বিনিয়োগে স্বল্প মেয়াদে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে মনে হয় না। তবে কোনো কারণে ক্রেডিট রেটিংয়ে নেতিবাচক প্রভাব পড়লে সেটা ক্ষতির কারণ হতে পারে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.