জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভারতীয় নাগরিক, ক্ষমা চাইলেন প্রযোজক

0
147

‘নিয়তি’র ছবির জন্য ২০১৬ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকায় শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালকের নাম প্রকাশ হয়েছিল নৃত্য পরিচালক হাবিবের।অথচ হাবিব দাবি করেছিলেন ওই ছবিতে নৃত্য পরিচালক হিসেবে কাজই করেননি তিনি। পরে পুরস্কারও গ্রহণ করেননি তিনি। বিষয়টি নিয়ে সে বছর সমালোচনার ঝড় উঠে।

এবারও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারকে সমালোচনার উর্ধ্বে রাখতে পারলেননা কর্তৃপক্ষ। গত ৫ই নভেম্বর তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে ঘোষণা করা হয়েছে দুই বছরের (২০১৭-১৮) সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্তদের তালিকা। যেখানে পরিচালক, শিল্পীসহ চলচ্চিত্রের সকল শাখার কলাকুশলীদের নামের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এরমধ্যে ২০১৭ সালের ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রের জন্য ‘সেরা সম্পাদক’ হিসেবে মো. কালামের নাম ঘোষণা করা হয়, যিনি একজন ভারতীয় নাগরিক।

অথচ ফেব্রুয়ারিতে পুরস্কারের জন্য চলচ্চিত্র আহ্বান করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড যে বিজ্ঞপ্তি দেয় সেখানে বলা হয়েছিল,কেবল বাংলাদেশি নাগরিকরা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হবেন।

তাহলে চলচ্চিত্র পুরস্কারের তালিকায় কালামের নাম কীভাবে এলো- সে প্রশ্নের জবাবে জুরি বোর্ডের সদস্য ও চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, কালাম যে একজন বিদেশি সেটা আমাদের জানাই ছিল না। আর এই সিনেমার শিল্পী-কলাকুশলীদের তালিকায় ১৯ নম্বরে কালামের যে ঠিকানা দেওয়া আছে ঢাকার পল্লবীর।

বিষয়টি নিয়ে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবি প্রযোজক সানী সানোয়ার জানান, ভুলবশত এটি হয়ে গেছে। আমি যখন কাগজে সাইন করেছিলাম তখন সবকিছু চেক করিনি। যে প্রস্তুত করেছে কাগজটি সে এই ঠিকানা কেনো ব্যবহার করলো তা বুঝছি না। আমার কাছে যখন কাগজটি এসেছে তখন শুধু আমি সাইন করে দিয়েছি। কিন্তু গতকাল যখন ঘোষণার খবর জানলাম, তখন আমরাও ভেবেছি যে কালাম তো ভারতীয় নাগরিক। সে কিভাবে পাবে এই পুরস্কার। ভুল যেহেতু হয়ে গেছে তাই তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে যে কোনো পরবর্তী সিদ্ধান্ত আমরা মেনে নিতে প্রস্তুত আছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে