গোয়েন্দা হেফাজত থেকে পালানো সেই লায়লা গ্রেপ্তার

0
54
হেরোইন মামলার আসামি লায়লা সাবরিন ওরফে রেশমা

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের (ডিএনসি) ঢাকা বিভাগীয় গোয়েন্দা হেফাজত থেকে পালানো হেরোইন মামলার আসামি লায়লা সাবরিন ওরফে রেশমাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে রাজধানীর হাতিরঝিলের পুলিশ প্লাজা সংলগ্ন এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে একটি গোয়েন্দা টিম।

বুধবার সকালে ঢাকা বিভাগীয় গোয়েন্দা কার্যালয়ের উপপরিচালক রবিউল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন।

রেশমার গ্রামের বাড়ি নওগাঁ জেলা সদরের পারনগাঁও গ্রামে। তিনি বসবাস করেন রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানার ঢাকা উদ্যানে। গত বুধবার বিকেল ৪টার দিকে তিনি নিজের মোটরসাইকেল চালিয়ে শেরেবাংলা নগর থানার মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ সড়ক দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় ডিএনসির ঢাকা বিভাগীয় গোয়েন্দা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মুহাম্মদ রিফাত হোসেনের নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল রেশমার গতিরোধ করে। তাঁর কাছে থাকা ভ্যানিটি ব্যাগে তল্লাশি করে ১০০ পুরিয়া হেরোইন পাওয়া যায়। এর পরই তাঁকে গ্রেপ্তার এবং মাদক বহনে ব্যবহূত তাঁর মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় ওই দিন রাত পৌনে ১টায় তার বিরুদ্ধে শেরেবাংলা নগর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন ডিএনসির গোয়েন্দা কার্যালয়ের এসআই ইকবাল আহমেদ দীপু।

রাতে রেশমাকে গেণ্ডারিয়ায় বিভাগীয় গোয়েন্দা কার্যালয়ে রাখা হয়। গোয়েন্দা কার্যালয়ের সহকারী উপপরিদর্শক রোবিনা আক্তার ও সিপাই আব্দুর রহমানের হেফাজতে রাখা হয়েছিল তাঁকে। বৃহস্পতিবার সকালে সেখান থেকে পালিয়ে যান রেশমা।

আসামি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় সহকারী উপপরিদর্শক রোবিনা আক্তার বাদী হয়ে গত বৃহস্পতিবার গেণ্ডারিয়া থানায় একটি মামলা করেছেন। এজাহারে বলা হয়েছে, ভোর ৫টায় ভ্যাসলিন সদৃশ পদার্থ রোবিনা আক্তারের চোখেমুখে লাগিয়ে দেন রেশমা। এতে তিনি অচেতন হয়ে যান। পরবর্তী সময়ে সিপাই আব্দুর রহমান তাঁকে ডেকে তোলেন এবং জানান আসামি পালিয়ে গেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.