ওয়ান্ডারার্সসহ আরও ৩ ক্লাবে র‌্যাবের অভিযান

0
244
রাজধানীতে আরও তিন ক্লাবে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব।

রাজধানীতে আরও তিন ক্লাবে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব।

বুধবার বিকেলে ফকিরাপুলে ইয়ংমেনস ক্লাবে অভিযান চালানোর পর রাত ৯টার দিকে বনানীর আহম্মেদ টাওয়ারে ‘গোল্ডেন ঢাকা বাংলাদেশ’ এবং ফকিরাপুলে ‘ওয়ান্ডারার্স ক্লাব’ ক্যাসিনোতে অভিযান চালায় র‌্যাব-১ ও র‌্যাব-৩। দুটি ক্যাসিনোই সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া অভিযান চালানো হয়েছে গুলিস্তানে পীর ইয়ামেনী মার্কেট লাগোয়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র ক্লাবেও।

র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, ওয়ান্ডারার্স ক্লাব থেকে প্রচুর মাদকদ্রব্য, ২০ হাজার ৫০০ টাকার জাল নোট, ১০ লাখ ২৭ হাজার টাকা ও ক্যাসিনোর সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে। অভিযানের সময় ক্লাবের কয়েকজন পরিচালক পালিয়ে যান। গ্রেফতার করা হয় দুই কর্মচারীকে। ওই ক্লাবে যুক্ত আছেন মতিঝিলের কাউন্সিলর মমিনুল হক সাঈদ।

এছাড়া রাত সাড়ে ১০টার দিকে অভিযান চালানো হয় গুলিস্তানে পীর ইয়ামেনী মার্কেট লাগোয়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্র ক্লাবে। সেখান থেকে ৪০ জনকে আটক করা হয়। মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়া চক্র থেকে মদ, বিয়ার, নগদ টাকা ও কষ্টিপাথরের মূর্তি জব্দ করা হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধা ক্লাবের সাতটি বোর্ডের দুটি ছিল ভিআইপিদের।

এর আগে বিকেলে ফকিরাপুলে ইয়ংমেনস ক্লাবের ক্যাসিনোতে অভিযান চালায় র‌্যাব। এই ক্যাসিনোর সভাপতি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। অভিযানে ক্যাসিনো থেকে গ্রেফতার করা হয় ১৪২ জনকে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে গ্রেফতার ৩১ জনকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়, যাদের ১৬ জনই ক্যাসিনোর কর্মী। বাকিদের ছয় মাস করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ইয়ংমেনস ক্লাবের ক্যাসিনোতে অভিযানে প্রায় ২৫ লাখ টাকাসহ বিপুল পরিমাণ মদ, বিয়ার ও ইয়াবা জব্দ করা হয়। ক্যাসিনোটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। ক্যাসিনোর আটক কর্মীদের মধ্যে দুই নারীকে পরে ছেড়ে দেওয়া হয়।

র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, ফকিরাপুলের ইয়ংমেনস ক্লাবে জুয়ার আসর ও বার বসানোর কোনো লাইসেন্স নেই। সেখানে অবৈধভাবে দীর্ঘদিন ধরে জুয়া ও মদের আসর বসিয়ে আসছিল একটি চক্র। বুধবারের অভিযানে দুই নারীসহ ১৪২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেওয়া হয়েছে। ওই ক্লাব থেকে ২৪ লাখ ৩৯ হাজার টাকা জব্দ করা হয়।

এদিকে, অবৈধভাবে ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগে বুধবার রাতে গ্রেফতার করা হয় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে। তার হেফাজতে একটি অবৈধ অস্ত্র পাওয়া গেছে। এ ছাড়া তার কাছে লাইসেন্সের মেয়াদোত্তীর্ণ আরও দুটি অস্ত্র ও মাদক পাওয়া যায় বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে