৮০০ ইঁদুর মেরে পুরস্কৃত তিনি

0
159
৮০০ ইঁদুর মারার স্বীকৃতিস্বরূপ পার্বতীপুরের যোহান হাঁসদার হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

ইঁদুর ধরতে তাঁর মতো পারদর্শী লোক পার্বতীপুরে খুব কমই আছেন। ইঁদুর মারার জন্য তিনি ব্যবহার করেন নিজস্ব কৌশল। প্রথমে বাঁশের কঞ্চি ও সুতা দিয়ে তৈরি করেন ফাঁদ। ফাঁদে টোপ হিসেবে ব্যবহার করেন আলু। সেই আলু খেতে এসে ইঁদুর ফাঁদে আটকা পড়ে।

ইঁদুর ধরতে পারদর্শী এই ব্যক্তি হলেন দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার চণ্ডীপুর ইউনিয়নের বারোকোনা গ্রামের বাসিন্দা যোহান হাঁসদা। চলতি বছরে নিজস্ব কৌশলে ফসলের জন্য ক্ষতিকর প্রায় ৮০০ ইঁদুর মেরেছেন তিনি। এই কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ তাঁকে পুরস্কৃত করেছে পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদ। পুরস্কার হিসেবে তাঁর হাতে পাঁচ হাজার টাকা ও ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।

যোহান হাঁসদার হাতে পুরস্কার তুলে দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হাফিজুল ইসলাম প্রামাণিক। উপজেলা কৃষি অফিস মিলনায়তনে আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় তাঁর হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। জাতীয় ইঁদুর নিধন অভিযান উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

যোহান হাঁসদা জানান, প্রতিদিন গড়ে চার থেকে পাঁচটি ইঁদুর মারতে পারেন তিনি। তবে ইঁদুর সাঁওতালদের অন্যতম প্রিয় খাবার হওয়ায় তাঁদের বিভিন্ন উৎসবের সময় ইঁদুর মারার হার বেড়ে যায়। তিনি আরও বলেন, ইঁদুর হচ্ছে ফসল ও কৃষকের শক্র। কৃষিকাজ করতে গিয়ে তিনি এটি বুঝতে পারেন। এরপর থেকে তিনি নিজস্ব কৌশলে ইঁদুর ধরা শুরু করেন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. রাকিবুজ্জামানের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আমিরুল মোমিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রুকশানা বারী, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মাহিদুল ইসলাম ও সাজেদুর রহমান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে