হেডিংলি মহাকাব্যের পর কথার লড়াই

0
407
শেন ওয়ার্ন ও ম্যাট প্রায়র। ছবি: এএফপি

হেডিংলি টেস্টে ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ সময়ে রান আউটের সুযোগ নষ্ট করেন অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার নাথান লায়ন। এ নিয়ে টুইটে তাঁকে ঠাট্টা করেছেন ইংল্যান্ডের সাবেক উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ম্যাট প্রায়র। শেন ওয়ার্ন তাঁকে ছেড়ে কথা বলেননি। এ নিয়ে শুরু হয়েছে বাগ্‌যুদ্ধ

অ্যাশেজ মানেই কথার লড়াই। মাঠ কিংবা মাঠের বাইরে এক চুলও ছাড় দেয় না কেউ কাউকে। এমনকি ঝোপ বুঝে কোপ মারার অপেক্ষায়ও থাকেন অনেকে। হেডিংলি টেস্টের কথাই ধরুন। ম্যাচের স্নায়ুক্ষয়ী মুহূর্তে নাথান লায়ন রান আউটের সুযোগ নষ্ট করলেন। সুযোগটি কাজে লাগাতে পারলে হয়তো জয়ীর বেশে থাকত অস্ট্রেলিয়াই। ইংল্যান্ডের সাবেক উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান ম্যাট প্রায়র যেন এমন কিছুর অপেক্ষাতেই ছিলেন। লায়নকে উদ্দেশ করে সাবেক ইংলিশ উইকেটরক্ষকের টুইট— ‘ভালো করে ঘুমিও’। ব্যাপারটা মোটেই ভালো লাগেনি শেন ওয়ার্নের। পাল্টা জবাব দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি।

ম্যাট প্রায়রের টুইট। ছবি: টুইটার

প্রায়র ও ওয়ার্ন বাগ যুদ্ধের প্রসঙ্গে যাওয়ার আগে একটু পেছন ফিরে তাকানো যাক। ২০১৩-১৪ অ্যাশেজ সিরিজে ভীষণ বাজে ফর্ম যাচ্ছিল প্রায়রের। অবসাদজনিত কারণে অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফিরে এসেছিলেন তিনি। চার বছর পর তাঁকে এক হাত নিয়েছিলেন লায়ন। প্রায়রকে ‘ভীত’ বলেছিলেন অস্ট্রেলিয়ান এ স্পিনার। ২০১৭ সালে লায়ন বলেছিলেন, ‘তাদের ভেঙে পড়াটা ছিল অবিশ্বাস্য। ম্যাট প্রায়র দেশে ফিরে যেতে চেয়েছিল আর সে ছিল দলের সিনিয়র খেলোয়াড়দের একজন। সে ভীত হয়ে পড়েছিল। এটা চার বছর আগের কথা। আশা করি এখন সে ভালো আছে।’

প্রায়রকে উদ্দেশ করে শেন ওয়ার্নের টুইট। ছবি: টুইটার

প্রায়র কিন্তু লায়নের এ খোঁচারও জবাব দিয়েছিলেন। ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর এক টুইটে প্রায়র লিখেছিলেন, ‘…তুমি নিজেই নিজেকে বিব্রত করেছ নাথান লায়ন। আর এ খেলাটা পাল্টা কামড় দিতে ভালোই জানে।’ প্রায়রের কথা অনুযায়ী, লায়নকে ‘পাল্টা কামড়’ খেতে দুই বছর অপেক্ষা করতে হলো তাঁকে। লিডস টেস্টের চতুর্থ দিনে ইংল্যান্ডের শেষ জুটিতে জ্যাক লিচকে রান আউট করার সুযোগ নষ্ট করেন তিনি। তাতে টেস্টটা জিতে অ্যাশেজ সিরিজে ১-১ ব্যবধানে টিকে থাকে ইংল্যান্ড। এরপরই লায়নকে উদ্দেশ করে টুইটটি করেন প্রায়র। আর তাঁর এ টুইট সমর্থন করেন ইংল্যান্ডের হয়ে ৫ টেস্ট ও ৫ ওয়ানডে খেলা সাবেক স্পিনার ক্রিস অ্যাডামস।

ক্রিস অ্যাডামসকে উদ্দেশ করে ওয়ার্নের টুইট। ছবি: টুইটার

ওয়ার্ন ধুয়ে দিয়েছেন দুজনকেই। প্রায়রকে তাক করে সাবেক এ লেগির টুইট, ‘লায়ন তোমাকে নিয়ে ছেলেখেলা করেছিল বলে এসব বোকা বোকা কথার কোনো মানে হয় না। পরিণত হও। এসব বোকা বোকা মন্তব্য যথেষ্ট হয়েছে। এসো দয়া করে এত দারুণ টেস্ট ক্রিকেট আর অ্যাশেজ উপভোগ করি।’ আর অ্যাডামসকে উদ্দেশ করেও টুইট করেন ওয়ার্ন, ‘ ক্রিস, তুমি ছিলে ক্লাব পর্যায়ের ক্রিকেটার। তাই পাকামো করে আমাদের বিরক্ত করো না। তোমার কথা কেউ পাত্তা দেয় না।’

ওয়ার্নকে তাক করে প্রায়রের টুইট। ছবি: টুইটার

 

ওয়ার্ন এ নিয়ে আরও একটি টুইট করেন, ‘আমাদের সবার উচিত অ্যাশেজ, টেস্ট ক্রিকেট ও বেন স্টোকসের জয়গান গাওয়া। এসব সস্তা কথাবার্তা হাস্যকর ও অপ্রয়োজনীয়। এমনিতে আমি হাসি-ঠাট্টা ও মজা পছন্দ করি। কিন্তু ম্যাট প্রায়র ও ক্লাব পর্যায়ের ক্রিকেটার ক্রিস অ্যাডামস যা করেছে তা হাস্যকর।’ প্রায়র অবশ্য ছেড়ে কথা বলেননি। দুটি টুইট করেন তিনি। এক টুইটে ২০১৭ সালে লায়নের একটি মন্তব্য জুড়ে দেন প্রায়র। সেবার এক সাক্ষাৎকারে লায়ন বলেছিলেন ২০১৭-১৮ অ্যাশেজে ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়দের ‘ক্যারিয়ার শেষ’ করে দেবে অস্ট্রেলিয়া, এমন আশা করেন তিনি। বিবিসিতে প্রকাশ হওয়া এ মন্তব্য জুড়ে দিয়ে টুইটে প্রায়র লেখেন, ‘আমাকে আউট করার জন্য তাঁকে নিয়ে ব্যতিব্যস্ত হইনি বন্ধু আর আমিও একমত যে ম্যাচটা অসাধারণ ছিল। কিন্তু খোঁচা দিলে তা পাল্টা কামড় দেবেই।’

আরেকটি টুইটে প্রায়র লেখেন, ‘এখন এটা হাস্যকর ও শিশুতোষ হয়ে গেল? তোমরা এত ভুলোমনা! আমি মনে করি না ঠাট্টার মধ্যে কখন লুকোতে হয় সেটা তোমরা জানো এবং কোনটা অপরিণত ও শিশুতোষ সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে পারো।’

ম্যানচেস্টারে ৪ সেপ্টেম্বর শুরু হবে অ্যাশেজ সিরিজের চতুর্থ টেস্ট। বোঝাই যাচ্ছে, মাঠের লড়াইয়ের পাশাপাশি মাঠের বাইরে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার সাবেকরাও লড়বেন বাগ যুদ্ধে!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে