স্মার্টফোনের জন্যই খুন হয় কিশোরটি

0
373
হাটহাজারী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মুহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাসুম আজ মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে ।

চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে স্মার্টফোনের লোভে মুহাম্মদ সাব্বির উদ্দিন (১৬) নামে এক কিশোরকে খুন করা হয়েছে। হাটহাজারী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মুহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাসুম আজ মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

আবদুল্লাহ আল মাসুম বলেন, মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে গত শনিবার তনয় বড়ুয়া (২৩) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এ ১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দিতে সাব্বিরকে হত্যার কথা স্বীকার করেন তনয়। জবানবন্দিতে তনয় বলেন, সাব্বিরের সঙ্গে তাঁর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল। ঋণগ্রস্ত থাকায় সাব্বিরের স্মার্টফোনটির দিকে নজর পড়ে তাঁর। স্মার্টফোনটি ছিনিয়ে নেওয়ার লোভে নির্জন স্থানে নিয়ে ছুরি দিয়ে সাব্বিরকে গলা কেটে হত্যা করেন তনয়। পরে তিনি পালিয়ে যান।

অভিযুক্ত তনয় উপজেলার আবদুল্লাহপুর ইউনিয়নের মৃত বাবন বড়ুয়ার ছেলে। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি ও একটি ওড়না উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বাবুল আকতার বলেন, এ ঘটনায় অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা করেছেন সাব্বিরের বাবা। ঘটনার সঙ্গে অন্য কেউ জড়িত আছেন কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

গত ২৫ জুলাই সন্ধ্যায় উপজেলার বিবিরহাট বাজার থেকে নিখোঁজ হয় বিবিরহাটের বাসিন্দা মুহাম্মদ সাহাব উদ্দিনের ছেলে সাব্বির। নিখোঁজের পর খোঁজ না পাওয়ায় ফটিকছড়ি থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করেন সাব্বিরের বাবা। নিখোঁজের একদিন পর শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি সড়কের পাইন্দং কারবাল্লা টিলা নামক স্থানে পাহাড়ের পাদদেশ থেকে সাব্বিরের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে