স্ত্রী পালিয়ে যাওয়ায় শ্যালিকাকে অপহরণ করে ধর্ষণ!

0
511
ধর্ষণ

পিরোজপুরের নাজিরপুরে স্কুলছাত্রী শ্যালিকাকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগে দুলাভাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে ফেরদৌস শেখসহ আটজনকে আসামি করে নাজিরপুর থানায় একটি মামলা করেন।

অপহরণের পর পাঁচ মাস আটকে রেখে নির্যাতন করা ছাত্রীকে শুক্রবার রাতে উদ্ধারের পর শনিবার দুপুরে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে গত ১২ মার্চ স্কুলে যাওয়ার পথে তার দুলাভাই ফেরদৌস শেখ অপহরণ করে। এরপর বিভিন্ন স্থানে আটকে রেখে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে ফেরদৌস। শুক্রবার রাতে মামলার পর পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধারসহ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বছর ছয়েক আগে ফেরদৌসের সঙ্গে ওই ছাত্রীর বড় বোনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের একটি কন্যাসন্তান হয়। সন্তানের বয়স যখন দু’মাস তখন বড় বোন অন্য একটি ছেলের সঙ্গে পালিয়ে যান এবং তাকে বিয়ে করেন। সেই ক্ষোভ থেকেই ফেরদৌস এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

নাজিরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জাকারিয়া জানান, শনিবার ফেরদৌসকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.