স্ত্রীর জন্য খেলা ফেলে উড়লেন স্টার্ক

0
129
মিচেল স্টার্ক-অ্যালিসা হিলি দম্পতি। ছবি: অ্যালিসা হিলির টুইটার অ্যাকাউন্ট

আগামীকাল নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে লড়বে অস্ট্রেলিয়া ও ভারত। অস্ট্রেলিয়া দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে এ দিন খেলবেন উইকেটরক্ষক-ব্যাটার অ্যালিসা হিলি।

খেলা হচ্ছে দেশের মাটিতে। দেশের মাটিতে বিশ্বকাপ জয়ের সুবর্ণ সুযোগ স্ত্রীর সামনে। স্ত্রীর অনন্য এই অর্জন সরাসরি দেখতে কে না চাইবে?

মিচেল স্টার্কও তাঁর ব্যতিক্রম নন। অস্ট্রেলিয়া পুরুষ দলে পেস আক্রমণের অন্যতম অস্ত্র হওয়ার পাশাপাশি স্টার্কের আরেকটি পরিচয়—অস্ট্রেলিয়া মহিলা দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য অ্যালিসা হিলির স্বামী। স্ত্রীর দল উঠেছে বিশ্বকাপ ফাইনালে। দেশের মাটিতে শিরোপা উঁচিয়ে ধরার সুযোগ পাচ্ছেন স্ত্রী, যে সুযোগ এ জীবনে আর না-ও আসতে পারে। স্টার্কও তাই নিজের কাজ বাদ দিয়ে ছুটি নিয়ে ছুটে গেছেন অস্ট্রেলিয়ায়। মাঠে বসে স্ত্রীকে সমর্থন জোগানোর জন্য।

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সিরিজ খেলতে গেছে অস্ট্রেলিয়ার পুরুষ দল। টি-টোয়েন্টি সিরিজে জিতলেও ওয়ানডে সিরিজে স্বাগতিকদের কাছে পাত্তা পাচ্ছেন না স্টার্ক-স্মিথরা। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে হেরে এর মধ্যে সিরিজ জয়ের আশা বিসর্জন দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। আজ অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া তৃতীয় ম্যাচটা তাই অস্ট্রেলিয়ার কাছে ধবলধোলাই এড়ানোর লড়াই।

এই মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেই দলের প্রধান পেস-ভরসা স্টার্ককে পাচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া। স্ত্রীর খেলা দেখার জন্য ছুটি নিয়েছেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার টিম ম্যানেজমেন্টও ব্যাপারটা বুঝতে পেরেছে। হাসিমুখেই স্টার্ককে ছুটি দিয়েছে তারা। এমন সুযোগ স্টার্ক আর কখনো পাবে?

সে কথারই প্রতিধ্বনি শোনা গেছে অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের কণ্ঠে, ‘ঘরের মাঠে স্ত্রীর ফাইনাল ম্যাচ দেখার সুযোগ স্টার্ক জীবনে আর কখনো পাবে না। তাই আমরা ওকে দেশে ফিরে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছি। যাতে দুর্দান্ত একটি ম্যাচে স্ত্রীকে সমর্থন জোগাতে পারে স্টার্ক। ও গোটা বছর তিন ফরম্যাটে অনেক ম্যাচ খেলেছে। তাই আমরা অনেক দিন ধরেই ওকে ছুটি দেওয়ার ব্যাপারে কথাবার্তা বলেছি।’

এই ছুটির ফলে সামনের নিউজিল্যান্ড সফরের আগে স্টার্ক প্রয়োজনীয় বিশ্রামও পেয়ে যাবেন। সেটাও মাথায় রেখেছেন ল্যাঙ্গার, ‘সামনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ। সে সিরিজের আগে এই বিশ্রাম পেয়ে ও চাঙা হয়ে উঠবে। আমাদের দলে অনেক পেসার আছে। ঝাই রিচার্ডসন, কেন রিচার্ডসন, জশ হ্যাজলউড—যারা গত ম্যাচে খেলতে পারেনি। আশা করি এই ম্যাচে স্টার্কের বদলে সুযোগ পেয়ে তাদের একজন আমাদের মুগ্ধ করতে পারবে।’

এবার অস্ট্রেলিয়া নারী দলকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনালে তোলার পেছনে অ্যালিসা হিলির বড় ভূমিকা আছে। ভারতের বিপক্ষে ৫১ ও বাংলাদেশের বিপক্ষে ৮৩ রান করেছেন তিনি। দর্শকের সারিতে স্বামীকে দেখে আরও উদ্বুদ্ধ হবেন হিলি, এটা বলাই যায়। আর তাতে অস্ট্রেলিয়ারই লাভ!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে