সেই নারীকে স্ত্রী দাবি সিংড়ার যুবলীগ নেতার

0
249
বাঁ থেকে মিফতাহুল জান্নাত মিষ্টি, কামরুল হাসান কামরান ও শিউলি খাতুন

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া অন্তরঙ্গ ছবির সেই নারীকে নিজের স্ত্রী দাবি করেছেন নাটোরের সিংড়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুল হাসান কামরান।

একই সঙ্গে যারা তার ব্যক্তিগত ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে রাজনৈতিকভাবে হেয়প্রতিপন্নসহ সুনাম ক্ষুণ্ণ করেছেন, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। রোববার নাটোরের একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে কামরানের মা এবং প্রথম স্ত্রী শিউলি খাতুন, ভাইরাল হওয়া সেই নারী মিফতাহুল জান্নাত মিষ্টিসহ পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

যুবলীগ নেতা কামরুল হাসান কামরান দাবি করেন, ২২ অক্টোবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ও কিছু নিউজ পোর্টালে তার সঙ্গে দু’জন নারীকে নিয়ে যে পোস্ট দেওয়া হয়েছে, তা কুরুচিপূর্ণ। সেখানে ছবির নারী তার বিবাহিতা স্ত্রী। প্রকৃতপক্ষে তাকে রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে এ হীন প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে। তিনি এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান।

তিনি বলেন, তার দ্বিতীয় স্ত্রী মিফতাহুল জান্নাত মিষ্টির ফেসবুক আইডি হ্যাক করে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়। এতে করে তিনিসহ তার পরিবারের মানহানি হয়েছে।

কামরান বলেন, ব্যক্তিগত ছবি ছড়িয়ে যারা মান ক্ষুণ্ণ করেছে, এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলেছি। আইসিটি আইনে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

সংবাদ সম্মেলনে কামরানের দ্বিতীয় স্ত্রী মিফতাহুল জান্নাত মিষ্টি কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, যারা আমার এবং আমার স্বামীর ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে আমাদের মানহানি করেছে, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

প্রথম স্ত্রী শিউলি খাতুন তার স্বামীর দ্বিতীয় বিয়ের কথা স্বীকার করেন।

উল্লেখ্য, ২২ অক্টোবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় সিংড়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যবসায়ী কামরুল হাসান কামরানের কিছু ছবি ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পক্ষে-বিপক্ষে নানা আলোচনা-সমালোচনার ঝড় ওঠে।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.