সাঁতারে নাক দিয়ে ঢুকল অ্যামিবা, প্রাণ গেল মার্কিন শিশুর

0
460
লিলি মায়ে আভান্ট। ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস রাজ্যের ১০ বছর বয়সী মেয়ে লিলি মায়ে আভান্ট। সবে পঞ্চম শ্রেণিতে (ফিফথ গ্রেড) উঠেছে। ‘লেবার ডে’র (শ্রমিক আন্দোলনের স্মরণে) ছুটির দিনে বাবা-মায়ের কাছে বায়না ধরে হ্রদে সাঁতার কাটবে। ছোট্ট মেয়ের মুখের দিকে চেয়ে বাবা-মাও রাজিও হয়ে যান। তবে এই সাঁতার লিলির জীবনের অন্তিম মুহূর্ত বয়ে আনে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন বলছে, ওই সাঁতারের সময় লিলির নাকের ভেতর দিয়ে মাথায় এক প্রজাতির অ্যামিবা (এককোষী প্রাণী) ঢুকে পড়ে। ওই অ্যামিবা লিলির মস্তিষ্ক খেয়ে ফেলে। লিলি আক্রান্ত হয় জ্বরে, সঙ্গে তীব্র মাথাব্যথা। অসুস্থ লিলিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসক ও নার্সদের কঠোর চেষ্টায় ভর্তির পরে এক সপ্তাহ পর্যন্ত লিলির শরীরে প্রাণের স্পন্দন টিকে ছিল। এরপরই সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেল লিলি।

লিলির ঘটনাটি যুক্তরাষ্ট্রসহ আন্তর্জাতিক পরিসরে বেশ আগ্রহের সৃষ্টি করেছিল। সে সময় লিলিকে সহায়তার জন্য বিভিন্ন জায়গা থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল।

লিলির মৃত্যুর পর বিভিন্ন জায়গা থেকে শোক জানানো হয়েছে। শোক নেমে এসেছে তার স্কুলে। স্কুল কর্তৃপক্ষ ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছে, ‘লিলির মৃত্যু গভীর শোক নিয়ে এসেছে। আমাদের এলিমেন্টারি স্কুলে লিলি আশীর্বাদ হয়ে এসেছিল। সে ছিল সেরা ছাত্রী। তবে এর চেয়েও বড় বিষয়, লিলি সবার ভালো বন্ধু ছিল।’

লিলিকে সহায়তার জন্য তৈরি ‘লিলিস্ট্রং’ নামের একটি ফেসবুক পাতায় বলা হয়েছে, ‘আমাদের ছোট্টমণি এখন পুরো সুস্থ হয়ে অন্য জগতে পাড়ি জমিয়েছে।’

লিলির মৃত্যুর ঘটনায় তার চিকিৎসকেরা কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে, এ ঘটনায় মন্তব্য করার জন্য লিলির বাবা–মায়ের কাছে অনুমতি নেওয়া হয়নি।

লিলি যে অ্যামিবায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে, তা যুক্তরাষ্ট্রে একেবারে বিরল ঘটনা নয়। ২০০৯ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে ওই অ্যামিবা থেকে আক্রান্ত হওয়ার ৩৪টি ঘটনার কথা জানা গেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে