‘সর্বক্ষেত্রে মোজাফ্‌ফর আহমদের আদর্শ ছড়িয়ে দিতে হবে’

0
324
'স্বাধীনতা সংগ্রামের লড়াইয়ের মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন অধ্যাপক মোজাফ্‌ফর আহমদ।

‘স্বাধীনতা সংগ্রামের লড়াইয়ের মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন অধ্যাপক মোজাফ্‌ফর আহমদ। বর্তমানে তার আদর্শ সমাজের সর্বক্ষেত্রে অবহেলিত। এখন সময় এসেছে তার রাজনৈতিক চর্চা ও আদর্শ ছড়িয়ে দেওয়ার। তবেই সত্যিকার অর্থে একটি কল্যাণমুখী ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার রাষ্ট্র বিনির্মাণ করতে পারব আমরা।’

শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অধ্যাপক মোজাফ্‌ফর আহমদের নাগরিক স্মরণ সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঐক্য ন্যাপের সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্য বলেন, অধ্যাপক মোজাফ্‌ফর আহমদের মৃত্যুতে আয়োজিত এই শোক সমাবেশকে শক্তিতে পরিণত করে বিশেষ করে ন্যাপের খণ্ডিত অংশের সবাইকেই ঐক্যবদ্ধ হওয়া ফরজ শুধু নয়, আরও আগেই এর ঐক্য হওয়া উচিত ছিল। আর এক মিনিটও বিলম্ব সহ্য করা উচিত নয়। তিনি বলেন, মানুষের ভোটের অধিকারের জন্য স্বাধীনতা সংগ্রাম করেছিলাম আমরা। সেখানে ভোট আজকে বেহাল হয়ে গেছে। সেই বেহাল ভোটের অধিকার আমাদের জনগণের কাছে ফিরিয়ে আনার জন্য ঐক্যের প্রয়োজন। বর্তমানে সব ক্ষেত্রেই শূন্যতা। এই শূন্যতা পূরণের জন্য লড়াই দরকার। এটাই হবে অধ্যাপক মোজাফ্‌ফরের প্রতি সর্বশ্রদ্ধা।

সিপিবির সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান খান বলেন, স্বায়ত্তশাসন আন্দোলনের অন্যতম নেতৃত্বে ছিলেন মোজাফ্‌ফর আহমদ। তিনি অনেক দূরদর্শিতার অধিকারী ছিলেন। স্বাধীনতা সংগ্রামের পর মোজাফ্‌ফর আহমদ জাতীয় সরকারের দাবি তুলেছিলেন। কিন্তু তখন সেটা কেউ উপলব্ধি করতে পারেনি। বর্তমানে মোজাফ্‌ফর আহমদের আদর্শ সমাজের সর্বক্ষেত্রে ছড়িয়ে দিতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ শহর ন্যাপের সভাপতি এবি সিদ্দিকের সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় আরও বক্তব্য দেন ঐক্য ন্যাপের প্রেসিডিয়াম সদস্য এনামুল হক ও এম এ সবুর। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অ্যাডভোকেট নুরুল কবীর আহমেদ, অ্যাডভোকেট আওলাদ হোসেন, রথিন চক্রবর্তী, রফিউর রাব্বি, হালিম আজাদ, হাফিজুল ইসলাম, দুলাল সাহা, ধীমান সাহা জুয়েল প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে