শ্রমিকদের কর্মবিরতি, কনটেইনার পরিবহনে অচলাবস্থা

0
371
চট্টগ্রাম বন্দর

চট্টগ্রামে গাড়ি শ্রমিকদের কর্মবিরতিতে আজ সোমবার সকাল থেকে আমদানি-রপ্তানি পণ্যবাহী ও খালি কনটেইনার পরিবহনে কার্যত অচলাবস্থা শুরু হয়েছে। সীতাকুণ্ডে কনটেইনার পরিবহনকারী গাড়ির চালক খুনের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবিতে এই কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে শ্রমিকদের সংগঠন প্রাইম মুভার ট্রেইলার শ্রমিক ইউনিয়ন।

কনটেইনার পরিবহনকারী প্রাইম মুভার ট্রেইলার গাড়িতে রপ্তানি পণ্যবাহী কনটেইনার বন্দরে নেওয়া হয়। আবার আমদানি পণ্যবাহী কনটেইনার বন্দর থেকে ডিপোতে আনা হয়। এ ছাড়া খালি কনটেইনার ডিপো ও বন্দরে নিয়মিত আনা-নেওয়া হয় এসব গাড়িতে। ধর্মঘটের কারণে এ তিন ধরনের কনটেইনার পরিবহন এখন বন্ধ রয়েছে। গাড়ি না থাকায় জাহাজ থেকে কনটেইনার ওঠানো-নামানোর কার্যক্রমও ব্যাহত হচ্ছে। কনটেইনার পরিবহনের জন্য এ ধরনের বিশেষায়িত গাড়ি আছে প্রায় নয় হাজার।

গত বুধবার সীতাকুণ্ডে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন শাহজাহান সাজু নামের এক চালক। এ ঘটনায় কেউ গ্রেপ্তার না হওয়ায় গাড়ি বন্ধ রেখে আন্দোলন শুরু করল শ্রমিকদের সংগঠনটি। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিকী প্রথম আলোকে বলেন, খুনিকে গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবিতে এই ধর্মঘট শুরু হয়েছে। প্রশাসন ব্যবস্থা নিলে ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হবে।

কনটেইনার পরিবহনকারী গাড়িতে চট্টগ্রামের ১৮টি ডিপো থেকে বন্দরে আমদানি-রপ্তানি ও খালি কনটেইনার আনা-নেওয়া হয়। কর্মবিরতির কারণে ডিপো থেকে কনটেইনার আনা-নেওয়া বন্ধ হয়ে পড়েছে। জানতে চাইলে কনটেইনার ডিপো সমিতির সচিব রুহুল আমিন সিকদার প্রথম আলোকে বলেন, প্রতিদিন রপ্তানি পণ্যবাহী দেড় হাজার কনটেইনার বন্দরে পাঠানো হয়। কর্মবিরতির কারণে রপ্তানি পণ্যবাহী কনটেইনার বন্দরে পাঠানো যাচ্ছে না। আবার আমদানি পণ্যবাহী যেসব কনটেইনার ডিপোতে খুলে খালাস করা হয় তাও বন্দর থেকে আনা যাচ্ছে না।

বন্দর সচিব ওমর ফারুক বলেন, কর্মবিরতির কারণে কনটেইনার পরিবহন প্রায় বন্ধ আছে। তবে কনটেইনার খুলে পণ্য খালাসসহ অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিক আছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে