‘শরীর কেটে দুই টুকরা করার অনুভূতি কাশ্মীরি জনগণের’

0
283

ভারতনিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ বলেছেন, ‘একটি মানুষের শরীর কেটে দুটো ভাগ করলে যেমন হয় কাশ্মীরের জনগণের অনুভূতি আজ তেমন। আমার অবস্থাও তেমন। আমরা কী এই কাশ্মীর চেয়েছিলাম?’

গতকাল মঙ্গলবার এনডিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন ফারুক আবদুল্লাহ। সাক্ষাৎকারে কাশ্মীরের বর্তমান অবস্থা বর্ণনা করতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তিনি।

ফারুক আবদুল্লাহ বলেন, ‘এটাই কী ভারত? আমাদের ভারত সবার জন্য ছিল। যে ভারত ধর্মনিরপেক্ষতায় বিশ্বাস করত। আমরা আবার আন্দোলন করব একত্র হওয়ার জন্য। জনগণের জন্য।’

ফারুক আবদুল্লাহ বলেন, তাঁকে আটক করা হয়েছে। যদিও ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও দেশটির ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ দাবি করেছেন, ফারুক আবদুল্লাহকে আটকও করা হয়নি, গ্রেপ্তারও করা হয়নি। তিনি নিজ ইচ্ছায় শ্রীনগরে নিজ বাড়িতে আছেন।

অমিত শাহর ওই বক্তব্যের পর এনডিটিভি ফারুক আবদুল্লাহর সাক্ষাৎকারের প্রায় ছয় মিনিটের একটি ভিডিও প্রকাশ করে। ভিডিওতে দেখা যায়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ওই বক্তব্য নিয়ে প্রশ্ন করা হলে, ৮১ বছর বয়সী ফারুক আবদুল্লাহ বলেন, ‘আপনি দেখছেন, আমি এখানে আটক অবস্থায় আছি। আমি হতাশ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কীভাবে এমন মিথ্যা বললেন। আপনি নিশ্চয়ই এটা দেখেছেন, কাউকে এই বাড়িতে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।’ তিনি বলেন, ‘এই বাড়িতে উপস্থিত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছি। তাঁদের বলেছি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলছেন আমি আটক নই। আপনারা কে আমাকে আটকে রাখার। আমি জানি না, কতজন নিরাপত্তা সদস্যকে চাকরি হারাতে হবে এই সাক্ষাৎকারের জন্য।’

কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘৭০ বছর ধরে একটা জাতির জন্য আমরা লড়াই করছি। আজ আমরা কালপ্রিট হয়ে গেলাম। অথচ সংবিধান এবং সরকার ৩৭০ এবং ৩৫(এ) অনুচ্ছেদ দিয়ে কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দিয়েছে।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে