লুকোচুরির পরে অবশেষে পাওয়া গেল জিডিপির চূড়ান্ত হিসাব

0
151
জিডিপি প্রবৃদ্ধি

বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণ দেখা দেয় গত বছর মার্চে। ওই বছর ২৬ মার্চ থেকে টানা দুই মাসের বেশি সময় ছিল সাধারণ ছুটি। করোনার কারণে অর্থনীতির সব সূচক ছিল স্থবির। রাজস্ব আদায়, আমদানি, রপ্তানি, পর্যটন, হোটেল রেস্তোরাঁয় কিছু ছিল বন্ধ।

তারপরও সরকার বাজেটে ২০১৯-২০ অর্থবছরে ৫ দশমিক ২৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের (সাময়িক) কথা বলেছিল। যদিও অর্থনীতিবিদেরা সরকারের তথ্যের সঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করে আসছেন এত দিন। অর্থনীতিবিদদের মতে, বাস্তবতার সঙ্গে সরকারের দেওয়া তথ্যের মিল নেই। অবশেষে বিবিএস জানিয়েছে, সরকারের প্রক্ষেপণের চেয়ে প্রবৃদ্ধি কমেছে ১.৭৩ শতাংশ।

জিডিপির এই চূড়ান্ত তথ্য প্রকাশ করতে বিভিন্ন মহল থেকে অনেক দিন ধরে দাবি জানানো হচ্ছিল। পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের কাছে জিডিপির প্রবৃদ্ধির তথ্য কবে প্রকাশ করা হবে জানতে চাইলে তিনি এর আগে বলেছিলেন, সময় হলে প্রকাশ করা হবে। অবশেষে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

দেড় বছর আগে বিবিএসের প্রাক্কলন

দেড় বছর আগে বিবিএসের প্রাক্কলন

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিবিএসের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা গেছে, করোনার কারণে ২০১৯-২০ অর্থবছরে কৃষি খাতের প্রবৃদ্ধি আগের বছরের চেয়ে বেড়েছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে কৃষি খাতের প্রবৃদ্ধি ছিল ৯.৫৭ শতাংশ। ২০১৯-২০ অর্থবছরে তা বেড়ে ৯.৭৫ শতাংশ হয়েছে। তবে করোনার কারণে শিল্প ও সেবা খাতের প্রবৃদ্ধি কমেছে। সেবা খাতের প্রবৃদ্ধি ১৫ দশমিক ৬৩ শতাংশ থেকে কমে ১৩ দশমিক ৩১ শতাংশে নেমে এসেছে। আর শিল্প খাতের প্রবৃদ্ধি ১৭ দশমিক ৩৮ দশমিক থেকে কমে ৭ দশমিক ৩৫ শতাংশে নেমে এসেছে।

এদিকে সদ্য বিদায়ী ২০২০-২১ অর্থবছরের জিডিপির প্রবৃদ্ধির (সাময়িক) তথ্যও প্রকাশ করেছে বিবিএস। দেখা গেছে, গত অর্থবছর শেষে প্রবৃদ্ধি হবে ৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ। আর করোনার কারণে গত অর্থবছরে মানুষের ভোগব্যয়, বিনিয়োগ, রপ্তানি, আমদানি, সঞ্চয় সবকিছু কমেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে