রায়পুরে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ

শার্শা, মুক্তাগাছা ও আদমদীঘিতে শিকার আরও তিনজন

0
444
ধর্ষণ

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে মামাবাড়ি যাওয়ার পথে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে তুলে নিয়ে তিন দিন আটক রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তিন বখাটের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় চর ইন্দুরিয়া এলাকার বখাটে রাজিব হোসেন, রাকিব ও হৃদয়ের বিরুদ্ধে গত রোববার রাতে মামলা করেন ছাত্রীর বাবা।

সোমবার প্রধান অভিযুক্ত রাজীবকে উত্তর চরবংশী থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সে চরজালিয়া এলাকার আলমগীর মাঝির ছেলে।

এদিকে যশোর শার্শার পাকশিয়া বাজারে মানসিক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মুয়াজ্জিন মোজাম্মেল মোড়লের বিরুদ্ধে। ২ সেপ্টেম্বর রাতে এ ঘটনা ঘটে। অপরদিকে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে কওমি মাদ্রাসার এক ছাত্রীকে দু’দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শুভ নামে এক বখাটের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় রোববার রাতে ওই যুবকের বিরুদ্ধে মুক্তাগাছা থানায় মামলা হয়েছে। এছাড়া বগুড়ার আদমদীঘিতে শখের পল্লী বিনোদন কেন্দ্রের এক নারী রোববার সন্ধ্যায় গণধর্ষণের শিকার হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর: চর ইন্দুরিয়া মেঘনা বাজার এলাকায় একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে আটকে রেখে ছাত্রীকে ধর্ষণ করে বখাটেরা। একপর্যায়ে ছাত্রী অচেতন হয়ে পড়লে তারা তাকে রেখে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ। শুক্রবার সন্ধ্যায় রায়পুরের মামাবাড়ি যাওয়ার পথে ছাত্রীকে তুলে নেয় বখাটেরা।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রিয়াজুল কবির জানান, ওই ঘটনায় তিনজনের বিরুদ্ধে রায়পুর থানায় মামলা হয়েছে।

বেনাপোল: শার্শায় প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণে অভিযুক্ত মোজাম্মেল টেংরালী গ্রামের হামিদ মোড়লের ছেলে এবং গ্রামের দক্ষিণপাড়া মসজিদের মুয়াজ্জিন ও পাকশিয়া বাজারের নৈশপ্রহরী। গত শনিবার ধর্ষণের ঘটনাটি প্রকাশ পেয়েছে। তবে ডিহি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হোসেন আলী এবং ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান রাসেলের বিরুদ্ধে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে তারা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

গোড়পাড়া ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই খান মাসুদ রানা বলেন, ‘ধর্ষণের এ ঘটনা জানা নেই। এখন শুনলাম এবং বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে অবহিত করব।’

মুক্তাগাছা (ময়মনসিংহ): ধর্ষণের শিকার সদর উপজেলার মেয়েটি দশম শ্রেণিতে পড়ে। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার সঙ্গে এক মাস ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে মুক্তাগাছা উপজেলার রৌয়ারচর গ্রামের যুবক শুভ। গত বুধবার বিকেলে মাদ্রাসা ছুটির পর বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে মাদ্রাসার সামনে থেকে শুভ তাকে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে নেয়। মেয়েটিকে বিভিন্ন স্থানে ঘুরিয়ে সন্ধ্যার পর রৌয়ারচর পুরাতন বাজারের কাছাকাছি একটি নির্জন ঘরে আটকে রাখে। পরে সারারাত তাকে ধর্ষণ করে। পরেরদিন বৃহস্পতিবারও একাধিকবার তাকে ধর্ষণ করা হয়। পরিবারের সদস্যরা খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ছাত্রীকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে।

আদমদীঘি (বগুড়া): আদমদীঘিতে এক নারী আত্মীয়ের বাড়িতে যাওয়ার পথে মারধর ও গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে ওই নারী ১২ জনের বিরুদ্ধে আদমদীঘি থানায় মামলা করেন। পুলিশ জুয়েল নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। সে সান্তাহারের শাহজাহান আলীর ছেলে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে