যুবলীগ নেতা খালেদ ৭ দিনের রিমান্ডে

0
406
বৃহস্পতিবার রাতে যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ।

রাজধানীতে অবৈধভাবে ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগে গ্রেফতার ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার দুই মামলায় সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে দুই মামলায় তার সাত দিন করে রিমান্ড চায় গুলশান থানা পুলিশ। মহানগর হাকিম মাহমুদা আক্তার অস্ত্র মামলার শুনানি নিয়ে চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। পরে মহানগর হাকিম শাহীনুল ইসলামের আদালতে মাদক মামলায় তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। দুই মামলায় পর্যায়ক্রমে তার সাত দিনের রিমান্ড কার্যকর করা হবে বলে আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আজাদ রহমান জানিয়েছেন।

এর আগে খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করা হয়। বৃহস্পতিবার গুলশান ও মতিঝিল থানায় এসব মামলা হয়। এগুলোয় তার বিরুদ্ধে মাদক, অস্ত্র ও মুদ্রা পাচার আইনে অভিযোগ আনা হয়েছে। এর আগে দুপুরে তাকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব। পরে রাতে তাকে আদালতে হাজির করা হয়।

গুলশান থানার ওসি এম কামরুজ্জামান বলেন, র‌্যাবের পক্ষ থেকে করা তিন মামলায় খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাতপরিচয় আসামিও রয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে তাদের নাম-পরিচয় জানার চেষ্টা করবে।

বুধবার রাতে গুলশান-২ নম্বর সেকশনের ৫৯ নম্বর সড়কের বাসা থেকে খালেদকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। এ সময় ৫৮৪ পিস ইয়াবা, একটি অবৈধ অস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ দেশি-বিদেশি অর্থ জব্দ করা হয়। এর আগে ফকিরাপুলে তার পরিচালিত ইয়ংমেনস ক্লাবে অভিযান চালানো হয়। সেখানে ১৪২ জনকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। টাকা, মদ ও জুয়া খেলার সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। পরে রাতে আরও তিন ক্যাসিনোয় অভিযান চালিয়ে সিলগালা করে দেওয়া হয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে