মোদির তিন ঘনিষ্ঠ কর্মকর্তার দায়িত্ব নির্ধারণ

0
353
ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। ছবি: রয়টার্স

কিছুদিন আগে পি কে মিশ্রকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মুখ্য সচিব হিসেবে ও পি কে সিনহাকে মুখ্য পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। এবার তাঁদের কাজের পরিধিও ঠিক করে দেওয়া হলো। সঙ্গে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালের দায়িত্ব কী হবে, সেটিও নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এক আদেশ জারি করে তিনজনের দায়িত্ব নির্ধারণ করে দিয়েছে। মুখ্য সচিব পি কে মিশ্র নীতিনির্ধারণী ইস্যু থেকে শুরু করে আইন মন্ত্রণালয়, পেনশন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রিপরিষদের নিয়োগ কমিটি এবং অন্যান্য নিয়োগের বিষয়গুলো দেখবেন। এ ছাড়া মন্ত্রিপরিষদ সচিবালয় সংক্রান্ত বিষয়, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদের সভার বিষয়বস্তু তালিকা, দুর্নীতি দমন ইউনিট, প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের অধীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও এই সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর দেখভাল করবেন তিনি।

জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল জাতীয় নিরাপত্তা ও নীতিনির্ধারণী সংক্রান্ত বিষয়গুলোর দেখভাল করবেন। তবে কর্মী নিয়োগের বিষয়টি তাঁর দায়িত্বের অধীনে থাকবে না। এ ছাড়া বৈদেশিক সম্পর্ক, প্রতিরক্ষা, মহাকাশ, পারমাণবিক শক্তি ও গোয়েন্দা সংস্থা রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইং (র) এর নীতিনির্ধারণী বিষয়গুলোও পড়েছে তাঁর ওপর। জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল দপ্তর ও রাসায়নিক অস্ত্র সংক্রান্ত জাতীয় কর্তৃপক্ষের দপ্তরের দায়িত্বও পালন করবেন অজিত দোভাল। এ ছাড়া নাগাল্যান্ডের বিচ্ছিন্নতাবাদী দল ন্যাশনাল সোশ্যালিস্ট কাউন্সিল অব নাগাল্যান্ডের (এনএসসিএন) সঙ্গে আলোচনার দায়িত্বও সামলাতে হবে তাঁকে।

মোদির মুখ্য পরামর্শক পি কে সিনহা সব মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও সংস্থার কার্যক্রম দেখভাল করতে পারবেন। তবে পি কে মিশ্র ও অজিত দোভালকে নির্দিষ্টভাবে যেসব দপ্তরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, সেগুলোতে হস্তক্ষেপ করবেন না তিনি।

নতুন দায়িত্ব পাওয়ার আগে পি কে মিশ্র প্রধানমন্ত্রী মোদির অতিরিক্ত মুখ্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। গত সপ্তাহে মুখ্য সচিবের পদ থেকে নৃপেন্দ্র মিশ্র সরে দাঁড়ালে পি কে মিশ্রকে এই দায়িত্ব দেওয়া হয়। আর মুখ্য পরামর্শক হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া পি কে সিনহা এর আগে মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। মিশ্র ও দোভাল ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পদমর্যাদায় সুযোগ-সুবিধা ভোগ করছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে