মূল্যস্ম্ফীতি বাড়িয়েছে পেঁয়াজ

0
210
ফাইল ছবি

আগস্ট মাসের তুলনায় গেল সেপ্টেম্বরে মূল্যস্ম্ফীতি বেড়েছে। আগস্টে পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে মূল্যস্ম্ফীতি ছিল ৫ দশমিক ৪৯ শতাংশ। সেপ্টেম্বরে তা বেড়ে হয়েছে ৫ দশমিক ৫৪ শতাংশ। চলতি অর্থবছরের মূল্যস্ম্ফীতি ৫ দশমিক ৫ শতাংশে সীমিত রাখার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে সরকার ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) তৈরি মূল্যস্ম্ফীতির পরিসংখ্যান মঙ্গলবার একনেকের বৈঠকে উত্থাপিত হয়। জানা গেছে, বৈঠকে বিবিএসের পক্ষ থেকে বলা হয়, গত মাসে নিত্যপণ্য পেঁয়াজের দর অস্বাভাবিক বৃদ্ধির কারণে মূল্যস্ম্ফীতি বেড়েছে। পেঁয়াজের কেজিপ্রতি দর ১০০ টাকা ছাড়িয়ে যায়। আগস্টেও পেঁয়াজের দর বেশি ছিল। তবে সেপ্টেম্বরে কেজিতে ৪০ টাকা বেড়ে যায়।

একনেক সভায় বলা হয়, পেঁয়াজ ছাড়াও শুকনো মরিচ, শাকসবজি, চিকিৎসাসেবা, শিক্ষা উপকরণ, জ্বালানি কাঠ ইত্যাদির দাম বৃদ্ধিতে সেপ্টেম্বরে মূল্যস্ম্ফীতি বেড়েছে। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত একনেকের বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী এবং একনেকেরও চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা।

সূত্র মতে, সেপ্টেম্বরে খাদ্য ও খাদ্যবহির্ভূত খাতে মূল্যস্ম্ফীতি হয়েছে যথাক্রমে ৫ দশমিক ৩০ শতাংশ ও ৫ দশমিক ৯২ শতাংশ। আগস্টে এ হার ছিল যথাক্রমে ৫ দশমিক ২৭ ও ৫ দশমিক ৮২ শতাংশ। সেপ্টেম্বরে গ্রাম-শহর সব অঞ্চলেই মূল্যস্ম্ফীতি বেড়েছে। গ্রাম পর্যায়ে মাসটিতে মূল্যস্ম্ফীতি দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৪১ শতাংশ। আগস্টে ছিল ৫ দশমিক ৩৪ শতাংশ। অন্যদিকে শহর অঞ্চলে সেপ্টেম্বরে মূল্যস্ম্ফীতি হয়েছে ৫ দশমিক ৮০ শতাংশ। আগস্টে ছিল ৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.