মুশফিক-মিরাজও ওপেনিং করতে পারে: সুজন

0
40
খালেদ মাহমুদ সুজন

বাংলাদেশের এশিয়া কাপের দলে নেই পরীক্ষিত কোন ওপেনার। লিটন দাস ইনজুরিতে পড়েছেন। মুনিম শাহরিয়ার পরীক্ষায় ফেল করেছেন। টি-২০ ফরম্যাটে ভালো করেননি এনামুল হকও। তবে ওয়ানডে ফরম্যাটে ভালো করায় দলে রাখা টিকে গেছেন তিনি। তার সঙ্গে দলে নিয়মিত ওপেনার হিসেবে আছেন কেবল একটি টি-২০ খেলা পারভেজ ইমন।

সাকিব আল হাসান টি-২০ নেতৃত্বে ফিরলেও আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের দুই ম্যাচে একাদশ সাজাতে তাকে বিপাকে পড়তে হবে।  তবে বিসিবির ডিরেক্টর ও জাতীয় দলের টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন জানিয়েছেন, টি-২০ ফরম্যাটের ব্যাটিং অর্ডার অতো চিন্তার মতো বিষয় নয়।

সোমবার সংবাদ মাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘বিজয় এবং ইমন ছাড়াও ওপেনিংয়ে আমাদের আরও কিছু অপশন আছে। সাকিব ওপেনিংয়ে খেলতে পারে, মুশফিক খেলতে পারে। মেহেদি মিরাজ কিংবা শেখ মাহেদিও ওপেনিংয়ে খেলতে পারে। ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে আমি চিন্তিত না।’

সাকিব কিছুটা আগ্রাসী অধিনায়ক হওয়ায় তাকে নেতৃত্বভার দেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করেন সুজন। তিনি চান দলের ক্রিকেটাররা ১৮০ রান করার মতো ব্যাটিং করুক। বড় রান করতে গিয়ে ১০০ বা ১১০ রানে আউট হলেও কিছু মনে করবেন না বলে জানিয়েছেন সাবেক ক্রিকেটার ও অধিনায়ক।

সুজন বলেন, ‘আমরা এই ফরম্যাটে ভালো করছি না, সেজন্য নানান কিছুর চেষ্টা করছি। সেজন্য সাকিবকে নেতৃত্বে ফেরানো হয়েছে। এই ফরম্যটের সেরা ক্রিকেটার সে। বিশ্বব্যাপী অনেক ম্যাচ খেলেছে। সাকিব কিছুটা আগ্রাসী অধিনায়ক। সেজন্য আমরা তাকে দায়িত্ব দিয়েছে।’

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের দুই ম্যাচ খেলবে। দুই দলই সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের চেয়ে ভালো ক্রিকেট খেলছে। ওই গ্রুপ থেকে সুপার ফোরে যাওয়া কঠিন। সুজন জানান, তারা দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়া নিয়ে শঙ্কিত। তবে ওই বাধা দল পেরোতে পারবে বলে আশা করছেন তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.