মুক্তিযোদ্ধা ‘প্রিয় চাচা’ ৮১ বছরের নুর বকশ

0
398
হোলকার স্টেডিয়ামের বাইরে একতারা হাতে নুর বক্শ। ছবি: স্পোর্টসস্টার
তিনি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সেনানি তিনি। এখন মুশফিক-মাহমুদউল্লাহদের প্রিয়জন। খেলা দেখতে তিনি হাজির হয়েছেন ইন্দোরে।

 

হাতে নিয়ে একতারা, কণ্ঠে দেশজ লোক গান। মুখের রেখাচিত্রে জীবনের অভিজ্ঞতা। পোড়া চোখ দুটো বলে দেয় এ জীবনে তিনি অনেক দেখেছেন। আজ ইন্দোর টেস্ট শুরুর দিন সকালে হোলকার স্টেডিয়ামের বাইরে এভাবেই নজর কাড়লেন নূর বক্শ। তাঁর আরেক পরিচয় ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। জীবন বাজি রেখে লড়েছেন যুদ্ধের ময়দানে। এখন মজেছেন ক্রিকেটে। খেলা দেখতে ছুটে যান নানা জায়গায়।

টি-টোয়েন্টি সিরিজের শুরু থেকেই ভারতে রয়েছেন ৮১ বছর বয়সী এ মুক্তিযোদ্ধা। হোলকার স্টেডিয়ামের বাইরে আজ তাঁকে দেখা গেল সবুজ গেঞ্জি পরে, যাঁর পেছনে লেখা ‘ডেডলি টাইগার্স’। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘স্পোর্টস স্টার’কে তিনি জানালেন খেলা দেখতে ভারতে আসার পেছনের গল্পটা, ‘ঢাকা থেকে ট্রেনে কলকাতায় এসেছি এরপর হাওড়া হয়ে দিল্লি, রাজকোট হয়ে নাগপুর। খরচ কমাতে ট্রেনে যাতায়াত করি কারণ আমি পেনশনে চলি। ম্যাচের টিকিট জোগাড় করে দিয়েছে বাংলাদেশের ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম।’

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের কাছে এ ক্রিকেটপ্রেমী ‘চাচা’ নামে পরিচিত। বাড়ি ঝিনাইদহ জেলায়। দেশের খেলা দেখতে এখান থেকে সেখানে যাচ্ছেন প্রায় ১৫ বছর ধরে। মুশফিকের সৌজন্যে দেশের খেলা দেখতে পাচ্ছেন বিনা পয়সায়। নূর বক্শ নিজেই জানিয়েছেন সে কথা, ‘এর আগেও ভারতে এসেছি। শ্রীলঙ্কাতেও গিয়েছি। বাংলাদেশের সব ম্যাচ বিনা পয়সাতেই দেখি। এ জন্য মুশফিকুরকে ধন্যবাদ। তার সঙ্গে অনেক বছরের জানাশোনা। ক্রিকেটাররা আমাকে গ্যালারিতে দেখতেই অভ্যস্ত। ওরা আমাকে “চাচা” বলে ডাকে। টিকিট সংগ্রহ করি তাদের হোটেল থেকে। আমার এখন কোনো চাকরি নেই তবে ৩২ বছর ধরে পেনশন পাচ্ছি। খেলা না থাকলে খাওয়া, ঘুম আর মনের সুখে ঘুরে বেড়াই।’

ভারতের মাটিতে টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশের ভালো করার সম্ভাবনা দেখেন নূর বক্শ। মুশফিকের ভক্ত হলেও মাহমুদউল্লাহকেও ভালো লাগে তাঁর। ভারতের বোলারদের বিপক্ষে বুক চিতিয়ে লড়তে পারলে ভালো করা সম্ভব বলেই বিশ্বাস করেন তিনি, ‘এটা পাঁচ দিনের খেলা। ওরা (ব্যাটসম্যানেরা) টিকে থাকতে পারলে ভালো করা সম্ভব। মুশফিক ছাড়া আমার প্রিয় খেলোয়াড় মাহমুদউল্লাহ। তার কাছ থেকে সেঞ্চুরি চাই।’

ইন্দোরে ব্যাটিংটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। গ্যালারিতে বসে নূর বক্‌স নিশ্চয়ই হতাশ। বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা লড়ার প্রেরণাটা তো নিতে পারেন দেশ মাতৃকার এই সাহসী সন্তানের কাছ থেকেই!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে