মা ইলিশ বহন: শরীয়তপুরে ৩ পুলিশ সাময়িক বরখাস্ত

0
220
তিন পুলিশ সদস্যের কাছ থেকে জব্দ করা মা ইলিশ।

প্রজনন মৌসুম চলায় ৯-৩০ অক্টোবর ইলিশ ধরার ওপরে নিষেধাজ্ঞা চলছে। এর মধ্যে বুধবার রাতে মা ইলিশ বহনের সময় ধরা পড়ায় শরীয়তপুরে তিন পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রাত ১২টার দিকে পুলিশ লাইন্সে পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন এই বরখাস্ত আদেশে স্বাক্ষর করেন। সাময়িক বরখাস্ত হওয়া পুলিশ সদস্যরা হলেন- শরীয়তপুর পুলিশ লাইন্সের মোটরযান বিভাগে দায়িত্বরত এসআই মন্টু মিয়া, কনস্টেবল হৃদয় ও সনজিত।

পুলিশ লাইন্স সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাত ১১টার পর থেকে পুলিশ লাইন্স সংলগ্ন পানি উন্নয়ন বোর্ড সড়ক দিয়ে ওই তিন পুলিশ সদস্য মা-ইলিশ নিয়ে যাচ্ছিল। তখন স্থানীয় কয়েকজনের হাতে ধরা পড়েন তারা। খবর পেয়ে প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান। এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহাবুর রহমান শেখ পুলিশ সদস্যদের কাছে থাকা মা ইলিশ জব্দ করে বিভিন্ন এতিমখানায় দিয়ে দেন। এরপর পুলিশ লাইন্সের আবাসিক পুলিশ পরিদর্শক ওই তিন পুলিশ সদস্যকে নিজের জিম্মায় পুলিশ লাইন্সে নিয়ে যান। সেখানে তাদের সাময়িক বরখাস্ত আদেশে স্বাক্ষর করেন পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আল মামুন শিকদার, পুলিশ সুপার কার্যালয়ের ডিআইও-১ আজাহারুল ইসলাম ও পালং মডেল থানা ওসি মো. আসলাম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন বলেন, আমি পুলিশ সদস্যদের দায়িত্ববান হতে অনেক বুঝিয়েছি। মা ইলিশ রক্ষা করা জাতীয় ইস্যু। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সবাই এ বিষয়ে সচেতন হচ্ছে। কিন্তু এ পুলিশ সদস্যরা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে  ইলিশ বহন করেছে। তাই তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তাদের পুলিশ লাইনে ক্লোজড করে রাখা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.