মাশরাফির বিদায় মুহূর্তে

0
158
তামিমের কাঁধে মাশরাফি। পাশে দলের বাকিরা।
তামিমের কাঁধে চড়ে মাশরাফি হাত নাড়ছিলেন উপস্থিত দর্শকদের উদ্দেশে। ‘থ্যাংক ইউ ক্যাপ্টেন, থ্যাংক ইউ ক্যাপ্টেন’ স্লোগানে তখন মুখরিত চা–বাগানঘেঁষা স্টেডিয়ামের রাতের আকাশ

 

কাভারে দাঁড়িয়ে ছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের ইয়র্কারটা চার্লটন শুমারের স্টাম্প উপড়ে ফেলতেই সবাই জড়ো হতে থাকলেন কাভারে দাঁড়িয়ে থাকা মাশরাফির দিকে। ম্যাচ শেষ। গুটিগুটি পায়ে তিনি এগোচ্ছিলেন দলটার দিকে। সবার আগে দৌড়ে এসে মাশরাফিকে জড়িয়ে ধরলেন সাইফউদ্দিন। তাঁর প্রথম অধিনায়ক বলে কথা!

আবেগ কিছুটা তো কাজ করবেই। প্রথম অধিনায়কের যে নেতা হিসেবে শেষ ম্যাচ। এরপর একে একে সবাই জড়িয়ে ধরতে লাগলেন মাশরাফিকে। মাহমুদউল্লাহ ভিড়ের বাইরে থেকে মাশরাফি মাথা থেকে ক্যাপটা নামিয়ে চুলগুলো এলোমেলো করে দিলেন। পুরো মুহূর্তটা নিশ্চয়ই মনে মণিকোঠায় জমা থাকবে অনেক বাংলাদেশির।

দলটা কিছুক্ষণ পর সারিবদ্ধ হলো। এগোতে লাগল জিম্বাবুয়ের ড্রেসিংরুমের দিকে। সবার সামনে মাশরাফি। জার্সিটা একটু নাড়াচাড়া দিয়ে কলার উঁচু করে এগিয়ে গেলেন জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটারদের দিকে। একে একে সবার সঙ্গে হাত মেলানো পর্ব শেষ করতেই মাশরাফিকে কাঁধে তুলে নিলেন তামিম ইকবাল। মাশরাফির হাত–পা ধরে ছিলেন তাইজুল, সৌম্য, মিরাজ, মোস্তাফিজরা। বাংলাদেশের ক্রিকেটটাকে এত দিন তিনিই কাঁধে তুলে এগিয়ে নিয়েছেন; এবার তাঁকে কাঁধে তুলে নেওয়ার পালা বাকি ক্রিকেটারদের।

তামিমের কাঁধে চড়ে মাশরাফি হাত নাড়ছিলেন উপস্থিত দর্শকদের উদ্দেশে। ‘থ্যাংক ইউ ক্যাপ্টেন, থ্যাংক ইউ ক্যাপ্টেন’ স্লোগানে তখন মুখরিত চা–বাগানঘেঁষা স্টেডিয়ামের রাতের আকাশ। সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের জিম্বাবুয়ের ড্রেসিংরুমের সামনে থেকে সাইট স্ক্রিনের পাশ দিয়ে বাংলাদেশের ড্রেসিংরুম বরাবর পৌঁছে মাশরাফিকে কাঁধ থেকে নামানো হয়। খুব সতর্কতার সঙ্গে। বাউন্ডারি লাইনের ঠিক বাইরে।

বেশিক্ষণ বাইরে না থেকে দলটা চলে যায় ড্রেসিংরুমে। কিন্তু সেখানেও বেশিক্ষণ থাকেনি। নিজেদের জার্সি খুলে সামনে ‘থ্যাংক ইউ ক্যাপ্টেন’ ও পেছনে ‘মাশরাফি’ লেখা জার্সি পরে একে একে বেরিয়ে এলেন ১৪ ক্রিকেটার। কয়েক মুহূর্তের জন্য বাংলাদেশ দলের সবাই যেন মাশরাফি হয়ে গেলেন! পরে মাশরাফি জানিয়েছেন, তিনি এসব আয়োজন সম্বন্ধে জানতেন না। এরপর মাশরাফিকে বিসিবির পক্ষ ক্রেস্ট তুলে দেন বিসিবিপ্রধান নাজমুল হাসান। এত ভিড়ের মাঝে দাঁড়িয়ে খেলা সম্প্রচারকদের মাশরাফি বলছিলেন, ‘এটা সম্মানের। মাঠের মধ্যে এটাই মনে হয় আমার সেরা সম্মান। ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ। আমার ছেলেদের ধন্যবাদ। ওরা অসাধারণ।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে