মাকে বের করে দেওয়ায় ছেলের কারাদণ্ড

0
221
প্রতীকী ছবি

মেয়ের বাড়ি থেকে গতকাল শনিবার বিকেলে ছেলের বাড়িতে যান এক মা। কিন্তু ছেলে তাঁকে ঘরে ঢুকতে দেননি, বাড়ি থেকে বের করে দেন। প্রতিবেশীরা বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এমনকি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য গিয়েও মাকে ওই বাড়িতে রাখার বিষয়ে ছেলেকে রাজি করাতে পারেননি। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেলেকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

গতকাল শনিবার রাত নয়টার দিকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার চাঁদগ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম মো. মজনু (৬০)। তিনি পেশায় কৃষক।

ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহেল মারুফ গতকাল রাত সোয়া নয়টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে বৃদ্ধার ছেলে মজনু মিয়াকে দুই মাসের কারাদণ্ড দেন। তবে আজ রোববার সকালে ওই ছেলেকে ফেরাতে মা থানায় যান। ততক্ষণে ছেলেকে কুষ্টিয়া কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

সোহেল মারুফ বলেন, কৃষক মজনুর পাকা বাড়ি। বাড়ির সামনে পাকা ফটক। তাঁর জায়গা-জমি আছে। দুই ছেলের বিয়ে হয়েছে। তাঁরাও বেশ সচ্ছল। তারপরও মজনু তাঁর মাকে বাড়িতে রাখতে নারাজ। তাই তাঁকে দণ্ড দিয়ে রাতেই কারাগারে পাঠানো হয়। আর মাকে তাঁর মেয়ের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে ছেলে কারাগারে থাকবে—এমনটা মেনে নিতে পারেননি মা। আজ সকালে ইউএনওর কাছে ছুটে যান। ছেলে ভুল করেছেন—জানিয়ে তাঁকে ফেরত নিতে চান।

এ বিষয়ে ইউএনও বলেন, মা চাইছেন না ছেলে কারাগারে যাক। কিন্তু কিছু করার নেই। দণ্ড হয়ে গেছে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে আপিল করলে জামিন পেতে পারেন মজনু। এ ছাড়া কিছু করার নেই। তা ছাড়া কোনো সন্তান এভাবে মাকে বাড়ি থেকে বের করে দিক, এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.