মজুরির দাবিতে ঘোড়াশালে জুটমিলে বিক্ষোভ

0
220
বিজেএমসি’র নিয়ন্ত্রণাধীন ঘোড়াশালস্থ বাংলাদেশ জুটমিলের শ্রমিকরা মজুরির দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন।

নরসিংদীর পলাশের বিজেএমসি’র নিয়ন্ত্রণাধীন ঘোড়াশালস্থ বাংলাদেশ জুটমিলের শ্রমিকরা মজুরির দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় মিলের উৎপাদন বন্ধ করে ভারপ্রাপ্ত মহাব্যবস্থাপককে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন তারা।

মিলের ভারপ্রাপ্ত মহাব্যবস্থাপক কাজী সিরাজুল ইসলাম সকালে তার অফিস কক্ষে আসলে জুটমিলের শ্রমিকরা মিল বন্ধ করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে বিক্ষোভ করতে থাকেন।

শ্রমিকরা এসময় আট সপ্তাহ মজুরি, কর্মকর্তাদের তিন মাসের বকেয়া বেতন ও কর্মচারীদের দুই মাসের বেতন পরিশোধের আহ্বান জানান।

শ্রমিকরা এ সময় বিক্ষোভ মিছিল করে বলেন, বকেয়া মজুরি না দেওয়া পর্যন্ত মিলের উৎপাদন চালু করবেন না।

মিলের সিবিএ সভাপতি ইউসুফ আলী জানান, ৫২০ তাঁতের এই জুট মিলটিতে প্রায় সাড়ে তিন হাজার শ্রমিক-কর্মচারী কর্মরত আছেন। কিন্তু বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশন (বিজেএমসি) কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনা ও উদাসীনতার কারণে মিলটি আজ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছে। বিজেএমসি টাকা না দেওয়ায় মিল কর্তৃপক্ষ আট সপ্তাহ যাবত শ্রমিকদের মজুরি ও দুই মাস ধরে কর্মচারীদের বেতন ও তিন মাস ধরে কর্মকর্তাদের বেতন-ভাতাদি দিতে পারছে না।

মিলের তাঁত বিভাগের শ্রমিক জাহাঙ্গীর বলেন, বাজারের সব কিছুর দাম বৃদ্ধির মধ্যে আট সপ্তাহ ধরে আমাদের মজুরি বন্ধ। এ অবস্থায় আমরা পরিবার-পরিজন নিয়ে অতি কষ্টে খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছি।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ জুটমিলের ভারপ্রাপ্ত মহাব্যবস্থাপক কাজী সিরাজুল ইসলাম বলেন, আমরা এখন শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থার মধ্যে আছি। বিজেএমসি টাকা না দেওয়ার ফলে আমরা শ্রমিক-কর্মচারীদের মজুরিও দিতে পারছি না। টাকার অভাবে মিলের পাটও কিনতে পারছি না। আজকের এই শ্রমিক বিক্ষোভের কথা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে মিলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.